Tuesday, May 21, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

যান চলাচলে শিথিলতা আনলো নির্বাচন কমিশন

জনজীবন সাধারণ রাখার উদ্দেশ্যে

আপডেট : ২৮ ডিসেম্বর ২০১৮, ১০:৪০ পিএম

নির্বাচনের দিন এবং তার আগের ও পরের দিনে  কতিপয় যন্ত্রচালিত যানবাহন এবং নৌযান চলাচলের ক্ষেত্রে শিথিলতা এনেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। তবে, মোটরসাইকেলের চলাচলের ক্ষেত্রে পূর্বারোপিত নিষেধাজ্ঞা যথারীতি বহাল রয়েছে।

শুক্রবার (২৮ ডিসেম্বর) এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ইসির যুগ্ম সচিব (নির্বাচন পরিচালনা) ফরহাদ আহম্মদ খান স্বাক্ষরিত একটি নির্দেশনা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের পাঠিয়েছে ইসি।

নির্দেশনায় জনজীবন সাধারণ রাখার উদ্দেশ্যে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় এবং নৌপরিবহন মন্ত্রণালয় কর্তৃক নির্বাচনকালীন সময়ে যানবাহন চলাচলে কিছু বিশেষ ক্ষেত্রে যানবাহন ও নৌযান চলাচলে পূর্বারোপিত নিষেধাজ্ঞায় শিথিলতা আনার কথা বলা হয়েছে।

নির্দেশনায় বলা হয়, জরুরি সেবা কাজে নিয়োজিত যানবাহন এবং ওষুধ, স্বাস্থ্য-চিকিৎসা ও অনুরূপ কাজে ব্যবহৃত দ্রব্য ও সংবাদপত্র বহনকারী সব ধরনের যানবাহনও এ নিষেধাজ্ঞার বাইরে থাকবে।

অন্যদিকে বিমানের যাত্রী (টিকিট ও প্রমাণসহ) ও তাদের আত্মীয়-স্বজনকে বিমানবন্দরে যাতায়াতের জন্য যানবাহনও নিষেধাজ্ঞার বাইরে থাকবে।

এতে আরো বলা হয় নির্বাচনের প্রার্থীরা এবং তাদের যেকোনো ১জন এজেন্ট ১টি করে গাড়ি ব্যবহার করতে পারবেন। 

এর পাশাপাশি কূটনৈতিক এলাকায় দূতাবাস বা হাইকমিশনে কর্মরত বিদেশি নাগরিকদের যাতায়াতের জন্য এবং দূতাবাস বা হাইকমিশনে কর্মরত স্থানীয় স্টাফদের কূটনৈতিক জোনের বাইরে (শুধু যাওয়া-আসা) যাওয়ার জন্য সীমিত সংখ্যক যানবাহনে চলাচলে অনুমতি দেওয়ার জন্য নির্বাচন কমিশন সিদ্ধান্ত দিয়েছে।

নির্দেশনায় ইসির অনুমোদন সাপেক্ষে নির্বাচন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের মোটরসাইকেল ব্যবহারের অনুমতিও দেওয়া হয়েছে।

তবে, ইসির অনুমোদন ব্যতীত মোটরসাইকেল চলাচলে আগের জারি করা নিষেধাজ্ঞা বহাল রাখার নির্দেশ দিয়েছে ইসি।

উল্লেখ্য, শনিবার (২৯ ডিসেম্বর) মধ্যরাত (রাত ১২টা) থেকে ভোটের দিন দিবাগত মধ্যরাত (রাত ১২টা) পর্যন্ত বেবি টেক্সি/অটোরিকশা/ইজিবাইক, ট্যাক্সি ক্যাব, মাইক্রোবাস, জিপ, পিক-আপ, কার, বাস, ট্রাক, টেম্পোসহ স্থানীয় যন্ত্রচালিত যানবাহন চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। একই নিষেধাজ্ঞা রয়েছে নৌযান চলাচলের ওপর।  

About

Popular Links