Saturday, June 15, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

ইভ্যালির রাসেল সার্ভারের পাসওয়ার্ড দিচ্ছে না অভিযোগ পর্ষদের, মুক্তি দাবি গ্রাহকদের

বিচারপতি শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক বলেন, এক পাসওয়ার্ডেই আটকে আছে ইভ্যালির গ্রাহকদের অর্থ। বারবার ধরনা দিয়েও সিইও রাসেলের কাছ থেকে পাসওয়ার্ড উদ্ধার করতে পারেনি পরিচালনা পর্ষদ

আপডেট : ০১ জুলাই ২০২২, ০৮:৩৫ পিএম

সাভারের দুটি গুদামে ২৫ কোটি টাকার সম্পদ রয়েছে আলোচিত ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির। অন্যদিকে প্রতিষ্ঠানটির গ্রাহক ও ব্যবসায়ীদের কাছে দায় রয়েছে ৪০৩.৮০ কোটি টাকা। তবে গ্রাহকদের এই অর্থ উদ্ধারে অসহযোগিতার অভিযোগ উঠেছে প্রতিষ্ঠানটির সাবেক প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মোহাম্মদ রাসেলের বিরুদ্ধে। বারবার ধরনা দিয়েও তার কাছ থেকে মূল সার্ভারের পাসওয়ার্ড উদ্ধার করতে পারেনি পরিচালনা পর্ষদ।

শুক্রবার (১ জুলাই) বিকেলে ইভ্যালির ধানমন্ডি কার্যালয়ে অডিটের সবশেষ পরিস্থিতি নিয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান ইভ্যালির পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান বিচারপতি শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক।

তিনি বলেন, ‌“এক পাসওয়ার্ডেই আটকে আছে ইভ্যালির গ্রাহকদের অর্থ। বারবার ধরনা দিয়েও সিইও মোহাম্মদ রাসেলের কাছ থেকে পাসওয়ার্ড উদ্ধার করতে পারেনি পরিচালনা পর্ষদ।”

তিনি আরও বলেন, “ইভ্যালির কাছে এখন প্রায় ২৫ কোটি টাকার পণ্য রয়েছে। পাওনাদারদের তথ্য না পাওয়ায় ২৫ কোটি টাকার পণ্য থাকলেও তা দেওয়া যাচ্ছে না। এর ব্যাংকে যে টাকা আছে, তা দিয়ে গ্রাহকদের পাওনা মেটানো সম্ভব নয়।”

এ মাসেই ইভ্যালির অডিট কার্যক্রম শেষ হবে এমন আশা প্রকাশ করে বিচারপতি শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক বলেন, “আমরা কাজ করে যাচ্ছি। চলতি মাসের শেষ নাগাদ ইভ্যালির অডিটের পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট পাওয়া যাবে।”

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন বোর্ডের সদস্য সাবেক সচিব মোহাম্মদ রেজাউল আহসান, মাহবুবুল করিম, চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্ট ফখরুদ্দিন আহম্মেদ ও আইনজীবী ব্যারিস্টার খান মোহাম্মদ শামীম আজিজ।

রাসেলের মুক্তি দাবি

সংবাদ সম্মেলনের আগে ইভ্যালির প্রধান কার্যালয়ের সামনে প্রতিষ্ঠানটির সাবেক সিইও রাসেলের মুক্তির দাবিতে বিক্ষোভ করেন গ্রাহকেরা। তাদের দাবি, ইভ্যালির রাসেলকে মুক্তি দিয়ে ব্যবসা পরিচালনার সুযোগ দিলে প্রতিষ্ঠান ঘুরে দাঁড়াবে। গ্রাহকরা তাদের টাকা ফেরত পাবেন। মার্চেন্ডরাও পাবেন। মিলবে বিনিয়োগকারীও।

অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে করা এক মামলায় ২০২১ সালের ১৬ সেপ্টেম্বর ইভ্যালির চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিন ও সিইও রাসেলকে গ্রেপ্তার করে র‍্যাব। এরপর তাদের বিরুদ্ধে দেশের বিভিন্ন জেলায় বেশ কয়েকটি মামলা হয়। বর্তমানে জামিনে আছেন প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিন।

About

Popular Links