Saturday, May 18, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

বিবাহিত প্রাক্তন প্রেমিকাকে ডেকে নিয়ে গণধর্ষণ, গ্রেপ্তার ৩

ওই নারী বাসায় ফিরে ৯৯৯ ফোন করে পুলিশকে ঘটনাটি জানালে ওইদিন সন্ধ্যায় অভিযান চালিয়ে প্রধান অভিযুক্ত শাওনসহ তার দুই সহযোগীকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। গ্রেপ্তাররা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ঘটনায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে

আপডেট : ০৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০:২৯ পিএম

গাজীপুরের টঙ্গীতে এক নারীকে (২৪) ফোনে বাসা থেকে ডেকে নিয়ে গণধর্ষণের অভিযোগে তিন যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। অভিযুক্তরা হলেন টঙ্গীর মিরাশপাড়া এলাকার শাওন (২৪), নাদিম হোসেন (১৯) ও গাজী সাকিবুজ্জামান সিয়াম (২১)। এদের মধ্যে শাওনের সঙ্গে ভুক্তভোগীর প্রেমের সম্পর্ক ছিল বলে জানিয়েছে পুলিশ।

সোমবার (৫ সেপ্টেম্বর) গণধর্ষণের ঘটনাটি ঘটে। মঙ্গলবার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে অভিযুক্তদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে। টঙ্গী পূর্ব থানার উপপরিদর্শক (এসআই) সাব্বির হোসেন বিষয়টি ঢাকা ট্রিবিউনকে নিশ্চিত করেছেন।    

টঙ্গীর বাসিন্দা ভুক্তভোগী নারী জানান, কয়েক মাস আগে তার বিয়ে হয়। শাওন তার পূর্ব পরিচিত। সোমবার সকালে অভিযুক্ত শাওন তাকে ফোন করে দেখা করার জন্য ডাকে।

তিনি বলেন, “দেখা করতে গেলে শাওন ও তার দুই সহযোগী একটি ঘরের ভেতরে নিয়ে চোখ বেঁধে ফেলে এবং ধর্ষণ করে। শাওন তার মোবাইল ফোনে ঘটনার ভিডিও ধারণ করে। কাউকে জানালে ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেয়।”

টঙ্গী পূর্ব থানার উপপরিদর্শক (এসআই) সাব্বির হোসেন বলেন, “প্রধান অভিযুক্ত শাওনের সঙ্গে ওই নারীর প্রেমের সম্পর্ক ছিল। সোমবার সকালে ওই নারীকে ফোনে বাসা থেকে টঙ্গীরই একটি বাড়িতে নিয়ে গণধর্ষণ করে শাওন ও তার সহযোগীরা।”

তিনি আরও বলেন, “ভুক্তভোগী নারী বাসায় ফিরে ৯৯৯-এ (জাতীয় জরুরি সহায়তা নম্বর) ফোন করে পুলিশকে ঘটনাটি জানায়। পুলিশ সোমবার সন্ধ্যায়ই অভিযান চালিয়ে প্রধান অভিযুক্ত এবং তার দুই সহযোগীকে গ্রেপ্তার করে। তারা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গণধর্ষণ এবং ভিডিও ধারণের কথা স্বীকার করেছে।”

টঙ্গী পূর্ব থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আশফুল ইসলাম জানান, সোমবার রাতে ভুক্তভোগী নারী তিন যুবককে অভিযুক্ত করে থানায় মামলা করেন। স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য তাকে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

About

Popular Links