Tuesday, May 21, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

প্রধানমন্ত্রী: মিডিয়া সরকারের সমালোচনা করে যা বলতে চায়, স্বাধীনতা আছে

প্রধানমন্ত্রী বলেন, সব কথা বলার পরেও, যদি কেউ বলে যে তাকে কথা বলতে দেওয়া হচ্ছে না, তাহলে উত্তর কী হবে? এটা আমারও প্রশ্ন

আপডেট : ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৭:৪৪ পিএম

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, “বাংলাদেশের ক্রমবর্ধমান সংবাদমাধ্যম তার সরকারের সময়ে যা বলতে চায়, বলার স্বাধীনতা রয়েছে।”

মঙ্গলবার (২৭ সেপ্টেম্বর) প্রচারিত ভয়েস অব আমেরিকাকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি এ কথা বলেন। তিনি এখন যুক্তরাষ্ট্র সফরে ওয়াশিংটনে আছেন। সেখানেই এই সাক্ষাৎকার দিয়েছেন।

তিনি বলেন, “সব কথা বলার পরেও, যদি কেউ বলে যে তাকে কথা বলতে দেওয়া হচ্ছে না, তাহলে উত্তর কী হবে? এটা আমারও প্রশ্ন।”

প্রধানমন্ত্রী বলেন, “১৯৯৬ সালে তিনি ক্ষমতায় আসার আগে বাংলাদেশে মাত্র কয়েকটি টেলিভিশন ও বেতারকেন্দ্র ছিল। সেগুলোও সরকার নিয়ন্ত্রণ করতো। তিনি ক্ষমতায় আসার পর বেসরকারি খাতকে অবাধে মিডিয়া হাউস চালানোর পথ খুলে দিয়েছিলেন।”

তিনি বলেন, “অনুমোদিত ৪৪টি টেলিভিশন চ্যানেলের মধ্যে ৩২টি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল এখন চালু রয়েছে। লোকেরা টেলিভিশন টকশোতে অংশ নিচ্ছে এবং তারা নির্দ্বিধায় কথা বলছে। সত্য হোক বা মিথ্যা হোক তারা সরকারের সমালোচনা করছে।”

সামরিক স্বৈরশাসক ক্ষমতায় থাকাকালে এতো বাকস্বাধীনতা ছিল না বলেও জানান তিনি।

About

Popular Links