Sunday, June 16, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

ইভ্যালির রাসেল-শামীমার সম্পদ ক্রোকের নির্দেশ

চেক প্রতারণার মামলায় এই আদেশ দেওয়া হয়েছে

আপডেট : ২৭ অক্টোবর ২০২২, ০৯:২২ পিএম

ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির সাবেক প্রধান নির্বাহী (সিইও) মোহাম্মদ রাসেল এবং তার স্ত্রী ও প্রতিষ্ঠানটির সহ-উদ্যোক্তা শামীমা নাসরিনের সম্পত্তি ক্রোকের আদেশ দিয়েছেন আদালত। চেক প্রতারণার মামলায় এই আদেশ দেওয়া হয়েছে।  

বৃহস্পতিবার (২৭ অক্টাবর) বাদীপক্ষের আইনজীবী এইচ এম আল আমিন জানান, গত ২৪ অক্টোবর ঢাকার অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট তোফাজ্জল হোসেনের আদালত শুনানি শেষে এ আদেশ দেন।

মামলার বিবরণী থেকে জানা যায়, ২০২১ সালের ২৩ জানুয়ারি মামলার বাদী মেহেদী হাসান খান বিজ্ঞাপন দেখে তিনটি মোটরসাইকেল, একটি মোবাইল ফোন ও কিছু গিফট কার্ড অর্ডার করেন এবং এ বাবদ আট লাখ ৫৪ হাজার টাকা মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে পরিশোধ করেন। ৪৫ দিনের মধ্যে পণ্য সরবরাহের কথা থাকলেও আসামিরা তা সরবরাহ কর‍তে ব্যর্থ হন।

এরপর ৯ মার্চ ইভ্যালি পণ্যের সমমূল্যের একটা চেক প্রদান করেন। একই বছরের ৫ জুলাই চেকটি ব্যাংকে জমা দিলে তা ডিজঅনার হয়। এ বিষয়ে ১৪ অক্টোবর তাদের লিগ্যাল নোটিশ পাঠানো হয়। কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ না করায় ২৮ নভেম্বর শামীম নাসরিন ও মো. রাসেলের বিরুদ্ধে বাদী মামলা করেন। 

আদালত আসামিদের হাজির হওয়ার জন্য সমন জারি করেন। তবে তারা উপস্থিত না হওয়ায় গত চলতি বছরের ১ ফেব্রুয়ারি গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন আদালত। পরোয়ানার পর তিন ধার্য তারিখ এ বিষয়ে প্রতিবেদন না আসায় আদালত তাদের সম্পত্তি ক্রোকের আদেশ দেন।

গ্রাহকদের সঙ্গে প্রতারণার অভিযোগে পর গত বছর সেপ্টেম্বরে গ্রেপ্তার করা হয় ইভ্যালির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ও প্রধান নির্বাহী (সিও) মোহাম্মদ রাসেল ও তার স্ত্রী শামীমাকে। পরে শামীমা জামিনে মুক্তি পান। তবে শীর্ষ ব্যক্তিদের অনুপস্থিতিতে বন্ধ হয়ে যায় প্রতিষ্ঠানটি।

About

Popular Links