Tuesday, May 21, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

ক্রিকেট নিয়ে বিতর্কিত প্রশ্নে কারণ দর্শাও নোটিশ

সম্প্রতি যাত্রাবাড়ী আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজে জীববিজ্ঞানের প্রশ্নপত্রে নেতিবাচক উদ্দীপক নির্বাচন করা হয়, দশম শ্রেণির নির্বাচনি পরীক্ষার জীববিজ্ঞান প্রশ্নপত্রের এই উদ্দীপক নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক বিতর্ক শুরু হয়

আপডেট : ১৮ নভেম্বর ২০২২, ০৮:০১ পিএম

যাত্রাবাড়ী আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজে জীববিজ্ঞানের সৃজনশীল প্রশ্নে বাংলাদেশের ক্রিকেট খেলা নিয়ে নেতিবাচক প্রশ্ন করায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছে ঢাকা শিক্ষা বোর্ড।

শুক্রবার (১৮ নভেম্বর) শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক তপন কুমার সরকার এ তথ্য জানান।

চেয়ারম্যান বলেন, “ক্রিকেট খেলা নিয়ে সৃজনশীল প্রশ্নের কারণে প্রতিষ্ঠানকে শোকজ করা হয়েছে। পরবর্তী পাঁচ কর্মদিনের মধ্যে লিখিত জবাব দিতে বলা হয়েছে।”

সম্প্রতি যাত্রাবাড়ী আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজে জীববিজ্ঞানের প্রশ্নপত্রে নেতিবাচক উদ্দীপক নির্বাচন করা হয়। দশম শ্রেণির নির্বাচনি পরীক্ষার জীববিজ্ঞান প্রশ্নপত্রের এই উদ্দীপক নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক বিতর্ক শুরু হয়।

এর আগে উচ্চ মাধ্যমিকের সৃজনশীল প্রশ্নে সাম্প্রদায়িকতা উঠে আসায় দ্রুত ব্যবস্থা নেয় শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

যাত্রাবাড়ী আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের দশম শ্রেণির নির্বাচনি পরীক্ষার জীববিজ্ঞান প্রশ্নপত্রের ১ নম্বর উদ্দীপকটি ছিল এরকম— “রহমান সাহেবের বয়স ৫০ বছর। তিনি সবসময়ই তার ব্যবসায়িক কর্মকাণ্ড নিয়ে টেনশনে থাকেন। একদিন হঠাৎ তার বুকের মাঝখানে কিছুটা বামদিকে প্রচণ্ড ব্যথা অনুভব করেন এবং প্রচুর ঘামতে থাকেন। দ্রুত ডাক্তারের কাছে নিলে ডাক্তার তাকে ইসিজি করাতে বলেন এবং আপাতত বাংলাদেশের ক্রিকেট খেলা দেখা থেকে বিরত থাকতে বলেন।”

উদ্দীপক থেকে চারটি প্রশ্ন করা হয়— (ক) স্ট্রোক কী? (খ) ধমনি ও শিরার মধ্যে ৪টি পার্থক্য লিখো। (গ) রহমান সাহেবের বুকে এমন ব্যথা হওয়ার সম্ভাব্য কারণ ব্যাখ্যা করো এবং (ঘ) “প্রতিকার অপেক্ষা প্রতিরোধ উত্তম”, রহমান সাহেবের সমস্যার আলোকে বিশ্লেষণ করো।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিতর্ক শুরু হলে শিক্ষকরা জানান, জনপ্রিয় ক্রিকেট খেলাকে বিতর্কিত করতে এমনটি করা হয়েছে। এটি ক্রিকেট খেলা নিয়ে নতুন ষড়যন্ত্র।

প্রতিষ্ঠানটির পক্ষে ওয়াহাব সর্দার নামের একজন শিক্ষক বিষয়টি ইতিবাচকভাবে দেখতে বলেছেন। তিনি বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, “বিষয়টি ইতিবাচকভাবে ভাবতে পারেন, আবার নেতিবাচকভাবেও দেখতেও পারেন।  আপনি যদি দেশপ্রেমিক লোক হন, তাহলে বাংলাদেশের খেলা হলে আপনার হৃদস্পন্দন হবে।  কোনও দেশপ্রেমিক লোকের হৃদস্পন্দন হলে তো হার্টফেল করতেই পারে।”

প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে জানানো হয়, প্রতিষ্ঠানে শিক্ষকদের সুনাম ও নিরাপত্তা অক্ষুণ্ন রাখার জন্য টেস্ট পরীক্ষার প্রশ্ন বাইরে থেকে কিনে আনা হয়। এই প্রশ্নটিও একটি সমিতির কাছ থেকে কিনে আনা হয়েছে। তাই এই ব্যাপারে আমাদের শিক্ষকদের কোনও দায়ভার নেই। জীববিজ্ঞান বইয়ের সঙ্গে অবশ্যই প্রশ্নটি প্রাসঙ্গিক। কারণ, যারা প্রকৃত দেশপ্রেমিক তারা তাদের দেশের খেলা দেখার সময় উত্তেজনা থেকে তাদের হার্ট অ্যাটাক হতে পারে, যদি খেলায় হারের সম্ভাবনা তৈরি হয়।

About

Popular Links