Sunday, May 19, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

ঋণ জালিয়াতি মামলায় সাহেদের জামিন বহাল

সাবেক ফারমার্স ব্যাংকে ঋণ জালিয়াতির অভিযোগে দুদকের করা মামলায় ২০২১ সালের ২৮ জুলাই হাইকোর্টে জামিন পান রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান সাহেদ। সেই জামিনের বিরুদ্ধে আপিল বিভাগে আবেদন করে দুদক

আপডেট : ০৯ জানুয়ারি ২০২৩, ০৪:১৯ পিএম

ঋণ জালিয়াতি করে পদ্মা ব্যাংকের (সাবেক ফারমার্স ব্যাংক) প্রায় পৌনে ৩ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগের মামলায় রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মো. সাহেদকে হাইকোর্টের দেওয়া জামিন বহাল রেখেছেন আপিল বিভাগ।

হাইকোর্টের দেওয়া জামিনের বিরুদ্ধে দুদকের আবেদন খারিজ করে সোমবার (৯ জানুয়ারি) আপিল বিভাগের বিচারপতি মো. নূরুজ্জামানের নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগ এ আদেশ দেন।

আদালতে জামিন আবেদনের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন আইনজীবী শাহ মঞ্জুরুল হক। দুদকের পক্ষে ছিলেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম খান।

এর আগে ২০২০ সালের ৬ জুলাই রিজেন্ট হাসপাতালের উত্তরা ও মিরপুর শাখায় অভিযান চালায় র‌্যাব। অভিযানে করোনার ভুয়া পরীক্ষার রিপোর্ট, করোনা চিকিৎসার নামে রোগীদের কাছ থেকে অর্থ আদায়সহ নানা অনিয়ম ধরা পড়ে। পরদিন ৭ জুলাই রাতে উত্তরা পশ্চিম থানায় ১৭ জনকে আসামি করে মামলা করা হয়।

পরে একই বছরের ১৫ জুলাই সাতক্ষীরার সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে রিজেন্ট গ্রুপ ও রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মো. সাহেদকে আটক করে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। সেই থেকে সাহেদ কারাবন্দি আছেন।

এদিকে সাবেক ফারমার্স ব্যাংকে ঋণ জালিয়াতির অভিযোগে ২০২০ সালে দুদকের প্রধান কার্যালয়ের উপসহকারী পরিচালক মোহাম্মদ শাহাজাহান মিরাজ বাদী হয়ে কমিশনের সমন্বিত জেলা কার্যালয় ঢাকা-১-এ সাহেদসহ চারজনের বিরুদ্ধে মামলা করেন। এই মামলায় ২০২১ সালের ২৮ জুলাই হাইকোর্ট সাহেদকে জামিন দেন। সেই জামিনের বিরুদ্ধে আপিল বিভাগে আবেদন করে দুদক।

প্রসঙ্গত, অস্ত্র আইনের মামলায় সাহেদকে যাবজ্জীবন দণ্ড দেন বিচারিক আদালত।

About

Popular Links