Saturday, June 15, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

ভাটারায় পলিটেকনিক্যাল শিক্ষার্থীর ‘আত্মহত্যা’

তার বড় ভাই আবদুল কাইয়ুম জানান, হতাশা থেকে সে আত্মহত্যা করে থাকতে পারে

আপডেট : ২০ জানুয়ারি ২০২৩, ০৪:২৫ পিএম

রাজধানীর ভাটারা থানা এলাকায় হাসিবুল হাসান শান্ত (২২) নামে এক ছাত্র আত্মহত্যা করেছেন বলে খবর পাওয়া গেছে।

শুক্রবার (২০ জানুয়ারি) বেলা ১১টার দিকে তার মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) মর্গে পাঠায় পুলিশ।

হাসিবুল হাসান শান্ত রাজধানীর একটি বেসরকারি পলিটেকনিক্যাল কলেজের সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ছাত্র ছিলেন। তার গ্রামের বাড়ি নোয়াখালীর সোনাইমুড়ী উপজেলায়। তিনি পূর্ব ভাটারা ২৪৩০ নম্বর বাসায় বাবার সঙ্গে ভাড়া বাসায় থাকতেন।

মৃতের বড় ভাই আবদুল কাইয়ুম জানান, হতাশা থেকে সে আত্মহত্যা করে থাকতে পারে।

তিনি বলেন, “আমার ভাই মেধাবী শিক্ষার্থী ছিল। মৃত্যুর আগে সে একটি চিরকুট লিখে গেছে। যেখানে সে তার হতাশার কথা জানিয়ে লিখেছে, বাবা আমাকে ক্ষমা করে দিও, ‘আমি তোমার যোগ্য সন্তান হতে পারলাম না। জীবনে বার বার ব্যার্থ হচ্ছিলাম। আমি একটা মানুষকে বেশি পছন্দ করি। যদি সে চায় তার ভরণ-পোষণ নিবা। আমি আমার মোবাইলটাকে পছন্দ করি। এইটা ওই মানুষ টাকে দিয়ে দিও। আমার মৃত্যুর জন্য কেউ দায়ী নয়।”

তিনি আরও বলেন, “মরদেহের পা মাটিতে লেগে ছিল।”

ভাটারা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. গোলাম মোস্তফা বলেন, আমরা খবর পেয়ে পূর্ব ভাটারার ২৪৩০ নম্বর বাসা থেকে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে বিছানার চাদর দিয়ে ঝুলন্ত অবস্থায় হাসিবুলের মরদেহ উদ্ধার করি। আইনি প্রক্রিয়া শেষে মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য শুক্রবার বেলা ১১টায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়।

About

Popular Links