Saturday, May 25, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

প্রেমিকাকে খুন করে ‘৯৯৯’ নম্বরে ফোন

পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে রাশেদাকে মৃত অবস্থায় পায়, হযরত আলী পাশেই দাঁড়িয়ে ছিলেন

আপডেট : ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ০৭:০২ পিএম

রাজধানীর উত্তরখানে ৪০ বছর বয়সী এক নারীকে হত্যার পর জাতীয় জরুরি সেবা নম্বর ৯৯৯-এ ফোন করে খবর দিয়েছেন তার প্রেমিক।

মঙ্গলবার (৭ ফেব্রুয়ারি) দিনগত রাতে উত্তরখানের চাঁনপাড়া বিল্লাল হাজীর সেমিপাকা বাড়ির পূর্ব পার্শ্বের একটি কক্ষে এ ঘটনা ঘটে।

খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে রাশেদা নামের ৪০ বছর বয়সী ওই নারীর লাশ উদ্ধার করে। সেখান থেকেই তার খুনি, ৪৭ বছর বয়সী হযরত আলীকে গ্রেপ্তার করা হয়।

নিহত রাশেদা শেরপুর শ্রীবরদী উপজেলার নয়াপাড়া গ্রামের আশরাফ আলীর মেয়ে। স্বামীর নাম আব্দুর রশিদ। বর্তমানে তারা উত্তরখান এলাকায় থাকতেন।

উত্তরখান থানার পরিদর্শক (তদন্ত) নাসির উদ্দিন জানান, রাতে ৯৯৯ ফোন করে হযরত আলী খবর দেন, তিনি তার স্ত্রীকে মেরে ফেলেছেন। কিন্তু সেখানে গিয়ে পুলিশ জানতে পারে, নিহত রাশেদা তার স্ত্রী নন।

চানপাড়ার বিল্লাল মিয়ার বাড়িতে ভাড়া থাকতেন আটোরিকশা চালক হযরত আলী। তার স্ত্রী সন্তান থাকেন অন্য জায়গায়।

“পাশে দুই সন্তানের মা রাশেদার সাথে তার প্রেমের সম্পর্ক ছিল। প্রায় এক বছর ধরে চলা পরকীয়ার জের ধরে সম্প্রতি রাশেদা বিয়ের জন্য হযরত আলীকে চাপ দেয়। মঙ্গলবার রাতে হযরত আলীর বাড়িতে রাশেদা গেলে তাদের কথা কাটাকাটি হয়।”

“এক পর্যায়ে হযরত আলী শিলের নোড়া দিয়ে বেশ কয়েকবার রাশেদার মাথায় আঘাত করে। রাশেদা মারা গেছে বুঝতে পেরে সে ৯৯৯ এ ফোন করে,” বলেন পরিদর্শক নাসির।

তিনি বলেন, “পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে রাশেদাকে মৃত অবস্থায় পায়। হযরত আলী পাশেই দাঁড়িয়ে ছিলেন।”

এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে বলে জানান পুলিশ কর্মকর্তা নাসির।

About

Popular Links