Monday, May 27, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

শিক্ষাসফরে গিয়ে সেলফি তোলার সময় রেলিং থেকে পড়ে মৃত্যু

বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে ফরিদপুর উপজেলার ভাঙ্গা উপজেলা গোলচত্বরের রেলিং থেকে সড়কের ওপরে পড়ে সৈকতের মৃত্যু হয়

আপডেট : ১০ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ০২:১৬ পিএম

শিক্ষাসফরে গিয়ে রেলিংয়ে দাঁড়িয়ে সেলফি তোলার সময় পা পিছলে পড়ে সাতক্ষীরার সৈকত হোসেন (১৬) নামে এক স্কুলছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। 

সৈকত হোসেন সাতক্ষীরার বল্লি মো. মুজিবুর রহমান মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্র ও সাতক্ষীরা সদর উপজেলার আখড়াখোলা গ্রামের গফফার মোড়েলের ছেলে।

বৃহস্পতিবার (৯ ফেব্রুয়ারি) রাত ৮টার দিকে ফরিদপুর উপজেলার ভাঙ্গা উপজেলা গোলচত্বরের রেলিং থেকে সড়কের ওপরে পড়ে সৈকতের মৃত্যু হয়।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণি থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত ৬টি বাসে প্রায় ৩০০ শিক্ষার্থীকে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় শিক্ষাসফরে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে ফেরার পথে ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার ভাঙ্গা গোলচত্বর পরিদর্শন করার জন্য বিরতি দেওয়া হয়।

রাত সাড়ে ৮টার দিকে ভাঙ্গা গোলচত্বরে পৌঁছানোর পর সেখানে বাস থেকে নেমে যে যার মতো ফোনে ছবি তুলতে থাকে। সবার মতো সৈকতও সেলফি তুলতে ব্রিজের ওপর ওঠে। ব্রিজের কিনারায় দাঁড়িয়ে সেলফি তুলতে গিয়ে পা পিছলে ২০ থেকে ২৫ ফুট নিচে পড়ে যায় সে। সেখান থেকে তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

সৈকত হোসেনের বোন তানিয়া খাতুন বলেন, “শিক্ষাসফরে যাওয়ার আগে তার ভাই বলেছিল, ‘আপা আমি যাচ্ছি। সবাই থাকবে তুই চিন্তা করিসনে। কোথাও যাওয়া হয় না, সুযোগ হয়েছে, ঘুরে আসি'।”

বল্লী মো. মুজিবুর রহমান মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আনোয়ার হোসেন ডাবলু ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, “দশম শ্রেণির বিজ্ঞান শাখার মেধাবী ছাত্র সৈকত হোসেন এবারের এসএসসি পরীক্ষার্থী ছিল।”

বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মো. জামিলুজ্জামান জামিল বলেন, “মেধাবী শিক্ষার্থী সৈকত হোসেনের মৃত্যুতে পুরো এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। স্কুলের শিক্ষার্থীরা কান্নায় ভেঙে পড়েছে।” 

বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির সভাপতি জিয়াউর বিন সেলিম যাদু বলেন, “দুর্ঘটনার খবর শোনা মাত্রই খোঁজ নিয়েছি। সকালে নিহত ছাত্রের বাড়িতে গিয়েছি। জুম্মার নামাজের পর স্কুলমাঠে তার জানাজা হওয়ার কথা।” 

About

Popular Links