Sunday, May 26, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

‘ডাকাতিতে বাধা’ দেওয়ায় মায়ের চোখ বেঁধে কলেজ পড়ুয়া ছেলেকে হত্যা

গাজীপুর সদর থানার ওসি বলেন, একাধিক বিষয় সামনে নিয়ে পুলিশ ঘটনার তদন্ত করছে। ঘটনাটি ডাকাতির নাকি পূর্বপরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড তা এখনই বলা যাচ্ছে না

আপডেট : ১৩ মার্চ ২০২৩, ০৩:৩৭ পিএম

ত্রিশ হাজার টাকা ও পাঁচ ভরি স্বর্ণ “লুটপাটে বাধা দেওয়ায়” গাজীপুরে মাহিউস চৌধুরী (১৮) নামে এক কলেজছাত্রকে শ্বাসরোধে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। নিহতের পরিবারের ধারণা, এটি পূর্ব শত্রুতা থেকেও হতে পারে। পুলিশ এ বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত নেয়নি। তারা বলছে, ঘটনাটি পূর্ব শত্রুতার জেরে হয়েছে নাকি ডাকাতি তা এখনই বলা যাচ্ছে না। এ ব্যাপারে তারা কাজ করছে।

রবিবার (১২ মার্চ) দিবাগত রাত ৩টায় নগরের দক্ষিণ সালনা (উত্তর মোল্লাপাড়া) এলাকায় এ হত্যাকাণ্ড ও ডাকাতির ঘটনা ঘটে। নিহত মাহিউস শহরের কাজী আজিম উদ্দিন কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্র ছিলেন।

মাহিউসের মা মেহজাবিন জানান, রবিবার রাত আনুমানিক ৩টার দিকে জানালার গ্রীল কেটে তাদের ঘরে প্রবেশ করেন “ডাকাতরা”। ঘরে ঢুকেই তার চোখ-মুখ কাপড় দিয়ে বেধে ফেলেন তারা। তারা হুমকি দেন, কোনো কথা বললে মেরে ফেলা হবে। পরে তারা পাশের ঘরে ঢোকেন। সেখানে ছিলেন তার ছেলে মাহিউস। সেখানেই তার ছেলেকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়।

তিনি বলেন, তার ছেলে মাহিউস চৌধুরী মোবইল গেমসে আসক্ত ছিলেন। প্রায় তিন মাস আগে স্থানীয় (এলাকার) সমবয়সীদের সঙ্গে মাহিউসর বিরোধ বাধে। ওই বিরোধ স্থানীয়ভাবে মীমাংসা হয়েছে।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ (জিএমপি) সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জিয়াউল ইসলাম ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, “একাধিক বিষয় সামনে নিয়ে পুলিশ ঘটনার তদন্ত করছে। জিএমপি, সিআইডি ও অন্যান্য গোয়েন্দা সংস্থা ঘটনাস্থল থেকে আলামত সংগ্রহ করেছে। ঘটনাটি ডাকাতির নাকি পূর্বপরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড তা এখনই বলা যাচ্ছে না।”

About

Popular Links