Wednesday, May 22, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

মানুষ পারাপার বেশি পাটুরিয়া ফেরিঘাটে, যানবাহনের চাপ কম

বিআইডব্লিউটিসি আরিচা অঞ্চলের উপ-মহাব্যবস্থাপক জানান, ফেরিঘাটে যানবাহনের চাপ একেবারেই স্বাভাবিক। তবে লুস যাত্রী সংখ্যা চোখে পরার মতো। ফেরি পার হতে যানবাহন আসার ১০ থেকে ১৫ মিনিটের মধ্যেই গাড়িগুলো ফেরি পারের সুযোগ পাচ্ছে

আপডেট : ২৭ জুন ২০২৩, ০২:১৫ পিএম

পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে যাত্রীর চাপ থাকলেও নেই কোনো ভোগান্তি। সোমবার (২৬ জুন) রাত থেকেই পাটুরিয়া ঘাটে যাত্রী ও যানবাহনের চাপ বাড়তে থাকে।

মঙ্গলবার সকালের দিকে দূরপাল্লার বাসের তুলনায় ছোট গাড়ি ও মোটরসাইকেলের চাপ ছিল বেশি। যানবাহন ও যাত্রী চাপ থাকলেও দীর্ঘসারি কিংবা যানজটের ভোগান্তিতে পড়তে হয়নি ঘরমুখো মানুষকে।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্পোরেশনের (বিআইডব্লিউটিসি) আরিচা অঞ্চলের উপ-মহাব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) শাহ মোহাম্মদ খালেদ নেওয়াজ জানান, ফেরিঘাটে যানবাহনের চাপ একেবারেই স্বাভাবিক। তবে লুস যাত্রী সংখ্যা চোখে পরার মতো। ফেরি পার হতে যানবাহন আসার ১০ থেকে ১৫ মিনিটের মধ্যেই গাড়িগুলো ফেরি পারের সুযোগ পাচ্ছে।

ফেরি সেক্টরের কর্মকর্তারা জানান, যাত্রী ভোগান্তি না থাকলেও বৃষ্টির কারণে মাঝে মধ্যে দুর্ভোগে পড়তে হচ্ছে।

বিআইডব্লিউটিসি কর্মকর্তা খালেদ নেওয়াজ বলেন, “ঈদে যাত্রী ও যানবাহন পারাপার নির্বিঘ্ন করতে ছোট বড় ২০টি ফেরি প্রস্তুত রয়েছে। বর্তমানে ১৮টি ফেরি চলাচল করছে। রাত থেকে যাত্রী, যানবাহনের চাপ বাড়লেও অনায়াসেই পার হতে পারছে সবাই। তবে নদীতে পানি বাড়ায় পারাপারে আগের চেয়ে কিছুটা সময় বেশি লাগছে।”

পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌপথে ২২টি এবং আরিচা-কাজিরহাট নৌপথ পারাপারে ১০টি লঞ্চ প্রস্তুত আছে। যাত্রীর চাপ বাড়লেও নৌপথ পারাপারে তেমন কোনো সমস্যা হবে না। এবারের ঈদযাত্রায় পর্যাপ্তসংখ্যক ফেরি থাকায় যাত্রীদের কোনো ভোগান্তি পোহাতে হবে না বলে আশা করেন তিনি।

About

Popular Links