Wednesday, May 22, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

নোয়াখালীতে বরের সঙ্গে সেলফি তোলা নিয়ে মারামারি, আহত ১১

বিদায়ের সময় বর-কনেকে একই মঞ্চে তুলে সেলফি তোলার সময় এক নারীর সঙ্গে ধাক্কা লাগাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের সূত্রপাত

আপডেট : ২৮ অক্টোবর ২০২১, ১১:৫৪ পিএম

নোয়াখালীর হাতিয়া উপজেলায় বিয়েবাড়িতে বরের সঙ্গে সেলফি তোলাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় ১১ জন আহত হয়েছেন। আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

বুধবার (২৭ অক্টোবর) রাতে নোয়াখালীর হাতিয়ার পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডে আহম্মদ মিয়া বাজারের পাশে কনের বাড়িতে অনুষ্ঠানে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, বরের সঙ্গে সেলফি তোলার সময় এক নারীর সঙ্গে ধাক্কা লাগাকে কেন্দ্র করে বিপত্তির সূত্রপাত। এরপর শুরু হয় কথা-কাটাকাটি। এরপর কথা-কাটাকাটি থেকে শুরু হওয়া সংঘর্ষ প্রায় ঘণ্টাব্যাপী সংঘর্ষ চলে। এতে ১১ জন আহত হয়।

আহতদের মধ্যে রয়েছেন- কনের মা কুলসুমা বেগম (৩৫), বরের ভাই মো. মিরাজ (৩৩), ইয়াসমিন আক্তার (৩০), সালমা আক্তার (২৮), মো. মুরাদ (৩০), মো. রুবেল (১৫), আনোয়ারা খাতুন (৭০)। 

এর মধ্যে কনের মা কুলসুমা বেগমের এখনও জ্ঞান ফেরেনি। আহতদের সবাই বর-কনের পারিবারিক আত্মীয়।


আরও পড়ুন- বিয়েতে মাংস নিয়ে মারামারি, তালাক; অতঃপর পালিয়ে বিয়ে করলেন বর-কনে!


স্থানীয়দের কাছ থেকে জানা যায়, তিন মাস আগে পারিবারিকভাবে পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডের কামাল উদ্দিনের ছেলে মো. মিলনের (২৫) সঙ্গে পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের রাশেদ উদ্দিনের মেয়ে রাশেদা বেগমের (১৯) বিয়ে হয়। বুধবার কনেকে আনুষ্ঠানিকভাবে নিয়ে যাওয়ার জন্য বরযাত্রী কনের বাড়িতে আসে।

ঘটনা প্রসঙ্গে বরের ভাই মিরাজ বলেন, “বিয়েবাড়িতে উভয়পক্ষের আন্তরিকতায় খাওয়া-দাওয়া শেষ হয়। বিদায় নেওয়ার সময় বর-কনেকে একই মঞ্চে আনা হয়। এ সময় বরের সঙ্গে সেলফি তুলতে গিয়ে নারীদের কথা-কাটাকাটি শুরু হয়। এক পর্যায়ে কনেপক্ষের কিছু উত্তেজিত লোক বরপক্ষের লোকজনের ওপর হামলা করে।”

হাতিয়া পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর দিদারুল ইসলাম খান বলেন, “সংঘর্ষের সংবাদ পেয়ে সঙ্গে সঙ্গে লোকজন নিয়ে কনের বাড়িতে আমরা পৌঁছাই। উভয়পক্ষকে শান্ত করে আহতদের স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠানোর ব্যবস্থা করি।”

হাতিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, “বিষয়টি আমি শুনেছি। তবে এখন পর্যন্ত কোনো পক্ষই থানায় লিখিত অভিযোগ দেয়নি। লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেব।”

 

About

Popular Links