Monday, May 20, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

ছিনতাইকারীদের বাধা দিতে গিয়ে ছুরিকাহত শাবি ছাত্রী

মোটরসাইকেলে আসা ছিনতাইকারীরা পথরোধ করে ছুরি দিয়ে ভয় দেখায় এবং তার কাছে থাকা মূল্যবান জিনিসপত্র দিয়ে দিতে বলে

আপডেট : ২২ নভেম্বর ২০২১, ০৯:৩৫ এএম

সিলেট নগরীতে ছিনতাইকারীর ছুরিকাঘাতে আহত হয়েছেন সায়মা আলম নামে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবি) এক শিক্ষার্থী। ছিনতাইকারীরা পথরোধ করে ভয় দেখিয়ে মূল্যবান জিনিসপত্র নিয়ে যেতে চাইলে তিনি বাধা দেন, এ সময় তারা তাকে আঘাত করে। সায়মা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিভিল এন্ড এনভাইরনমেন্টাল সায়েন্স বিভাগের ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের ছাত্রী।

রবিবার (২১ নভেম্বর) ভোর সাড়ে ৫টার দিকে ট্রেন থেকে নেমে বিশ্ববিদ্যালয়ে যাওয়ার পথে নগরীর আখালিয়া আবাসিক এলাকার সিলেট-সুনামগঞ্জ সড়কে ছিনতাইকারীদের কবলে পড়েন ওই ছাত্রী। বর্তমানে তিনি সিলেট এমএজি ওসমানি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

সকালে বিষয়টি সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. মো. আলমগীর কবীর।

প্রক্টর বলেন, “রবিবার ভোর সাড়ে ৫টায় ঢাকা থেকে ট্রেনে করে সিলেট আসে ওই শিক্ষার্থী। সিলেট স্টেশনে নামার পর সিএনজি করে বিশ্ববিদ্যালয়ে ফেরার পথে তপোবন-আখালিয়া আবাসিক এলাকার ফাঁকা জায়গায় একটি মোটরসাইকেলের দুই আরোহী তার পথ আটকায়। তারা ছুরি বের করে তার কাছে থাকা জিনিসপত্র দিয়ে দিতে বলে। ওই শিক্ষার্থী বাধা দেওয়ার চেষ্টা করলে তার বাম পায়ে ছুরি দিয়ে আঘাত করে তার কাছে থাকা ব্যাগ, ল্যাপটপ, মোবাইল, নগদ অর্থ ও অন্যান্য মূল্যবান জিনিসপত্র ছিনতাই করে নিয়ে যায়।”

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীর সন্দেহ, রেলস্টেশনে নামার পর থেকেই ছিনতাইকারীরা তার পিছু নিয়েছিল।

প্রক্টর আরও বলেন, “বর্তমানে ওই শিক্ষার্থী সিলেট এমএজি ওসমানি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। বিষয়টি আমি সংশ্লিষ্ট থানা পুলিশকে জানিয়েছি। লিখিত অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে তারা যথাযথ ব্যবস্থা নেবেন বলে জানিয়েছেন।”

এর আগে, ২০১৮ সালের মার্চে ছিনতাইকারীর ছুরিকাঘাতে শাবির অর্থনীতি বিভাগের ২০০৮-০৯ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী মাহিদ আল সালাম প্রাণ হারান।

সিলেটে শিক্ষার্থীসহ সাধারণ জনগণ প্রায়ই ছিনতাইকারীদের কবলে পড়েন। প্রতিনিয়ত সিলেট নগরীর বিভিন্ন জায়গায় ছিনতাইয়ের খবর পাওয়া গেলেও সিলেটবাসী কোনো স্থায়ী সমাধান পায়নি।

About

Popular Links