Tuesday, May 21, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

বৈধ কাগজপত্র দেখাতে ব্যর্থ পুলিশের ৬ গাড়ি আটকালো শিক্ষার্থীরা

পুলিশ এখন পর্যন্ত ৮-৯টি গাড়ির বিরুদ্ধে মামলা করেছে

আপডেট : ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ০২:৪৮ পিএম

সাম্প্রতিক সময়ে সড়ক দুর্ঘটনায় দুই শিক্ষার্থীর মৃত্যুর ঘটনায় নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনের পাশাপাশি  রাজধানীর রামপুরা ব্রিজে বিভিন্ন গাড়িও আটকায় বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা। 

মঙ্গলবার (৩০ নভেম্বর)  পুলিশেরও বেশ কয়েকটি গাড়ি আটকায় শিক্ষার্থীরা। এর মধ্যে অন্তত ছয়টি গাড়ির বৈধ কাগজপত্র দেখাতে পারেনি পুলিশ।

এ সময় শিক্ষার্থীরা সমস্বরে চিৎকার করে স্লোগান দিতে থাকে ‘‘লজ্জা! লজ্জা! পুলিশের কাছে গাড়ির বৈধ কাগজ নেই!’’

দেশের অন্যতম জাতীয় দৈনিক দ্য ডেইলি স্টারের এক প্রতিবেদনে এ কথা জানা যায়।

পুলিশের স্টিকারযুক্ত একটি গাড়ি আটকানোর পর শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, গাড়ির ড্রাইভার নিজেকে পুলিশ কর্মকর্তা হিসেবে পরিচয় দিলেও তিনি নিজের ড্রাইভিং লাইসেন্স কিংবা গাড়ির ফিটনেসের কাগজপত্র দেখাতে পারেননি।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত থাকা পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার মোহাম্মদ নুরুল আমিন বলেন, ‘‘শিক্ষার্থীদের দাবির মুখে পুলিশ সেই গাড়িটিকে বাজেয়াপ্ত করে এবং রামপুরা ট্রাফিক পুলিশ বক্সে নিয়ে আসে।’’

পরবর্তীতে সেই গাড়ির ড্রাইভার পুলিশকে জানায়, গাড়িটির মালিক পুলিশ সদর দপ্তরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রেজাউল করিম। গাড়িটির কাগজপত্র হারিয়ে গিয়েছে বলেও সেই ড্রাইভার।

শিক্ষার্থীরা তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়/বাংলাদেশ টেলিভিশনের স্টিকারযুক্ত একটি গাড়িও আটকায়। সেই গাড়ির সব বৈধ কাগজপত্র থাকলেও গাড়ির ড্রাইভারের ড্রাইভিং লাইসেন্স নবায়ন করা ছিল না।

পরে সেই গাড়িটিকে ১৫০০ টাকা জরিমানা করা হয়।

কনস্টেবল হেলালুর রহমান (রেকার অপারেটর) জানান, পুলিশ এখন পর্যন্ত ৮-৯টি গাড়ির বিরুদ্ধে মামলা করেছে।

About

Popular Links