Tuesday, May 28, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

বাঘশুমারি: পচা মাংস-ডিম দিয়ে বাঘের জন্য তৈরি হচ্ছে নতুন খাবার!

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের সুন্দরবনে  বাঘ গণনার কাজে বাঘের ছবি তোলার জন্য মাংসের নতুন পদ তৈরি করছে সুন্দরবন কর্তৃপক্ষ

আপডেট : ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ০৪:১৬ পিএম

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের সুন্দরবনে খুব শিগগিরই নতুন করে বাঘ গণনা তথা শুমারির কাজ শুরু হবে। এজন্য বাঘের ছবি তোলা খুবই প্রয়োজন। আর ছবি তোলার জন্য প্রাণীটিকে ক্যামেরার কাছাকাছি আনার কোনো বিকল্প নেই। আগে কাঁচা মাংস দিয়ে খাবারের জন্য প্রলুব্ধ করে বাঘকে ক্যামেরার লেন্সের সামনে আনা যেত। তবে ইদানিং আর সুন্দরবনের রাজাকে আর ক্যামেরার সামনে নিয়ে আসা যাচ্ছে না।

কিন্তু ছবি না তুলে যে বাঘ গণনার কাজও করা সম্ভব না। তাই বিস্তর গবেষণার পর বাঘের জন্য নতুন এক ধরনের নিয়ে এসেছে সুন্দরবন কর্তৃপক্ষ। মাংসের এ নতুন খাবার তৈরি করা হয়েছে পচা মাংস ও ডিম ব্যবহার করে।

দৈনিক প্রথম আলোর অনলাইন সংস্করণের এক প্রতিবেদনে এ কথা জানা যায়।

প্রতিবেদনে জানা যায়, সাত দিনের পচা মাংসের সঙ্গে পচা ডিম মিলিয়ে এ খাবার তৈরি করা হচ্ছে। এই খাবারের দুর্গন্ধই বাঘকে ওই পচা মাংস খেতে প্রলুব্ধ করবে। ওই পচা মাংসের কাছে বাঘ আসার পর চারদিকে লাগানো ক্যামেরার মুহুর্মুহু জ্বলজ্বলে ফ্ল্যাশে সুন্দরবন কর্তৃপক্ষ বাঘের ছবি তুলতে পারবে।

বন কর্তৃপক্ষের দাবি, বাঘ এখন পচা মাংস বেশি পছন্দ করছে। এ কথা মাথায় মাথায় রেখেই সুন্দরবন দপ্তরের তত্ত্বাবধানে পচা মাংসের নতুন ওই পদ তৈরি করা হচ্ছে।

সুন্দরবনের সজনেখালীর রেঞ্জ কর্মকর্তা বিশ্বজিৎ দাস জানান, সুন্দরবনের পীরখালীর জঙ্গলে প্রথম পরীক্ষামূলক কাজ শুরু করা হয়েছে। এক সপ্তাহ ধরে এই বনে ক্যামেরা লাগানোর কাজ চলছে। তারপর ৩০ দিন ধরে নজরদারি চলবে।

সুন্দরবনের ব্যাঘ্র প্রকল্পের কর্মকর্তা তাপস দাস জানান, সুন্দরবনের সব জায়গায় ক্যামেরা বসানো সম্ভব না। তাই সুন্দরবন এলাকাকে ৭৪৮টি গ্রিডে ভাগ করে প্রথম পর্যায়ে ১৪৯৬টি ক্যামেরা বসানোর কাজ শুরু হয়েছে।

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশ ও ভারতের পশ্চিমবঙ্গজুড়ে বিস্তৃত বিশ্বের অন্যতম ম্যানগ্রোভ বন সুন্দরবনের পশ্চিমবঙ্গের অংশে সর্বশেষ বাঘশুমারিতে ৯৬টি বাঘের সন্ধান মিলেছে।

পশ্চিমবঙ্গের বন কর্মকর্তারা জানান, এবার সুন্দরবনের বাঘের বিচরণক্ষেত্রের আড়াই হাজার বর্গকিলোমিটার এলাকায় বসানো হবে ক্যামেরা এবার নতুন পদ্ধতিতে বাঘশুমারি হলে বাঘের সংখ্যা ১০০ ছাড়িয়ে যেতে পারে বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন তারা।

About

Popular Links