Sunday, May 19, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

কক্সবাজারে অপহরণ: অবশেষে উদ্ধার চতুর্থ শিক্ষার্থীও

গত ৭ ডিসেম্বর কক্সবাজারের রামু উপজেলার পেঁচারদ্বীপ থেকে চার স্কুলছাত্রকে অপহরণ করা হয়

আপডেট : ১৫ মার্চ ২০২২, ০৫:২৬ পিএম

কক্সবাজারের রামু উপজেলার পেঁচারদ্বীপ থেকে অপহৃত চতুর্থ স্কুলছাত্রকেও উদ্ধার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব-১৫) সদস্যরা।

শনিবার (১১ ডিসেম্বর) ভোর ৫টায় মিজানুল ইসলাম (১৪) নামে ওই শিক্ষার্থীকে উদ্ধার করা হয়।

এর আগে শুক্রবার সন্ধ্যা সাতটার দিকে টেকনাফের নয়াপাড়া ও শালবাগান পাহাড়ি এলাকায় পৃথক অভিযান চালিয়ে অপহৃত অন্য তিন ছাত্রকে উদ্ধার করার কথা জানিয়েছিলেন কক্সবাজারের ১৬ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক মো. তারিকুল ইসলাম।

এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে তিন রোহিঙ্গাসহ সাতজনকে আটক করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

উদ্ধার হওয়া বাকি তিন স্কুলছাত্র হলো, রামু উপজেলার খুনিয়াপালং ইউনিয়নের পেঁচারদ্বীপের মংলাপাড়া এলাকার মোহাম্মদ কায়সার (১৪), মিজানুর রহমান নয়ন (১৪) ও জাহিদুল ইসলাম (১৫)।

র‍্যাব ১৫-এর অধিনায়ক খায়রুল আমিন সরকার শুক্রবার জানান, রামুর পেঁচারদ্বীপের বাতিঘর নামে একটি কটেজের কর্মচারী জাহাঙ্গীর আলম ও মো. ইব্রাহীমের সঙ্গে বন্ধুত্ব ছিল ওই চার ছাত্রের। গত ৭ ডিসেম্বর সকাল ১০টার দিকে জাহাঙ্গীর ও ইব্রাহীম তাদের সেন্টমার্টিন বেড়াতে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে টেকনাফের হোয়াইক্যং এলাকায় নিয়ে যায়।

তাদের সঙ্গে বেড়াতে যাওয়ার পর থেকে ওই চারজনের খোঁজ মিলছিল না। নিখোঁজের ২৪ ঘণ্টা পর (বুধবার) দুপুর থেকে স্বজনদের কাছে একাধিক অপরিচিত মোবাইল নম্বর দিয়ে ফোন করে মুক্তিপণ হিসেবে ২০ লাখ টাকা দাবি করতে থাকে অপহরণকারীরা। অন্যথায় তাদের লাশ ফেরত দেওয়া হবে বলেও হুমকি দিতে থাকে তারা।

বিষয়টি নিয়ে থানায় অভিযোগ করা হলে অভিযানে নামে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

About

Popular Links