Thursday, May 23, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

মোংলা বন্দরে ডুবন্ত জাহাজের ধাক্কায় আটকে পড়া ট্যাংকার উদ্ধারে কোস্টগার্ড

শনিবার চট্রগ্রাম হতে ১৬ জন ক্রুসহ ১৫০০ টন ফার্নিশ তেল নিয়ে খুলনার উদ্দেশে রওনা করে ট্যাংকারটি

আপডেট : ১৮ ডিসেম্বর ২০২১, ০৭:০৪ পিএম

মোংলা বন্দরের চ্যানেলের হিরণ পয়েন্টের ১৫ নম্বর বয়া এলাকায় শনিবার (১৮ ডিসেম্বর) সকালে ডুবন্ত জাহাজ ওশেনিয়া ওয়েভের র‍্যাকের সঙ্গে ধাক্কা লাগে “এমটি মনোয়ারা” নামের একটি তেলের ট্যাংকারের। এতে ট্যাংকারে একটি ছিদ্র সৃষ্টি হয়। দুর্ঘটনা কবলিত তেলের ট্যাংকারটি সেখানে আটকে আছে। ট্যাংকার থেকে এসওএস (সেভ এন্ড সোল) বার্তা পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে গেছে সুন্দরবনের হিরন পয়েন্টে পাইলট ষ্টেশনের কোস্টগার্ডের জাহাজ শহীদ মুনসুর আলী ও মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ ওয়েল স্পিল রেসপন্স ভেসেল।

মোংলা বন্দর হারবার মাস্টার শেখ ফখরউদ্দীন শনিবার বিকাল ৫টায় এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। 

তিনি বলেন, “দুর্ঘটনা কবলিত তেলের ট্যাংকার থেকে তেল বের হচ্ছে না বা জাহাজে পানিও ঢুকছে না। আঘাতের শুরুতে জাহাজের একটি চেম্বারে পানি ঢুকেছিল। কোস্ট গার্ড ও বন্দর থেকে লোকজন পৌছানোর পর পাম্প করে পানি বের করা হয়েছে। এখন জাহাজটি সেখানে আটকে আছে। জাহাজ থেকে তেল কমিয়ে বা ছিদ্রটি আটকানোর পর সেটিকে গন্তব্যে ছাড়া হবে।”

কোস্টগার্ড মোংলার মিডিয়া সেল থেকে জানানো হয়েছে, দুর্ঘটনা কবলিত তেলবাহী ট্যাংকারকে কোস্টগার্ড সহায়তা প্রদান করেছে। 

কোস্টগার্ডের মিডিয়া উইংয়ের প্রেস বার্তায় বলা হয়, ১৮ ডিসেম্বর আনুমানিক সকাল ৯টায় এমটি মনোয়ারা বয় নং ১৫ (জুলফিকার চ্যানেল) এর অদূরে গ্রাউন্ডিং করলে ট্যাংকারটির সম্মুখভাগে ক্ষতিগ্রস্থ হয় এবং ব্যালাস্ট ট্যাংক এ ফ্লাডিং এর সূত্রপাত ঘটে। এরপর ট্যাংকারটি ভিএইহচএফ চ্যানেলে ডিস্ট্রেস কল প্রদান করে। 

জানা যায়, তেলবাহী ট্যাংকার এমটি মনোয়ারা গত ১৭ ডিসেম্বর আনুমানিক সকাল ১০টায় চট্রগ্রাম হতে ১৬ জন ক্রুসহ ১৫০০ টন ফার্নিশ তেল নিয়ে খুলনার উদ্দেশে রওনা করে। ডিস্ট্রেস কল পাওয়া মাত্রই কোস্ট গার্ড জাহাজ বিসিজিএস মনসুর আলী অতি দ্রুত উদ্ধার অভিযানের জন্য হারবাড়িয়া হতে দূর্ঘটনা কবলিত ওয়েল ট্যাংকারের দিকে রওনা করে। বিসিজি আউটপোস্ট দুবলা ও বিসিজি স্টেশান কোকিলমনি থেকে ২টি উদ্ধারকারী দল, বোট ও সাবমার্সিবল পাম্পসহ ঘটনাস্থলে উদ্ধার কার্যক্রম শুরু করেছে । 

ট্যাংকারের ১৬ জন ক্রু শারীরিকভাবে সুস্থ আছে। ট্যাংকার হতে তেল আনলোডের জন্য বন্দর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক একটি উপযুক্ত খালি ট্যাংকার পাঠানোর কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

About

Popular Links