Wednesday, May 29, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

২৮ ডিসেম্বরের পর অ্যাপ থেকে করা যাবে বুস্টার ডোজের নিবন্ধন

এ সময়ের মধ্যে আগের টিকা কার্ডের মাধ্যমে বুস্টার ডোজ নেওয়া যাবে

আপডেট : ১৯ ডিসেম্বর ২০২১, ০৯:০৭ পিএম

করোনাভাইরাসের নতুন ধরন ওমিক্রন প্রতিরোধে বিশ্বব্যাপী বুস্টার ডোজ নেওয়ার ওপর জোর দিচ্ছেন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা। তাই ঝুঁকি এড়াতে বাংলাদেশেও শুরু হয়েছে করোনাভাইরাসের বুস্টার ডোজ কার্যক্রম। বুস্টার ডোজ প্রসঙ্গে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলছেন, আপাতত করোনাভাইরাসের বুস্টার ডোজ নিতে চেয়ে সুরক্ষা অ্যাপে নিবন্ধন করা যাবে না। আগামী ২৮ ডিসেম্বরের পর অ্যাপে নিবন্ধন করা যাবে। তবে এ সময়ের মধ্যে কেউ বুস্টার ডোজ নিতে চাইলে আগের টিকা কার্ডের মাধ্যমে নিতে পারবেন।

রবিবার (১৯ ডিসেম্বর) দুপুরে রাজধানী ঢাকার মহাখালীতে বাংলাদেশ কলেজ অব ফিজিশিয়ান'স অ্যান্ড সার্জন'স (বিসিপিএস) মিলনায়তনে এ টিকাদান কার্যক্রম উদ্বোধন করে তিনি এসব কথা বলেন।

জাহিদ মালেক বলেন, “দেশে আজ থেকে বুস্টার ডোজ দেওয়া শুরু হলো। ষাটোর্ধ্বদের বুস্টার ডোজ দিতে যা যা প্রস্তুতি দরকার, আমরা নিচ্ছি। তবে আমাদের প্রস্তুতি এখনও পুরোপুরি শেষ হয়নি। সুষ্ঠুভাবে এ কার্যক্রম চালাতে আমরা সুরক্ষা অ্যাপ আপডেট করছি। আইসিটি মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, তারা আরেকটু সময় নেবে। আগামী ২৮ ডিসেম্বরের আগে তারা অ্যাপটা আপডেট করতে পারবে না। তাই অ্যাপের মাধ্যমে বুস্টার ডোজের রেজিস্ট্রেশন (নিবন্ধন) এখনই করতে পারছি না। কিন্তু বুস্টার ডোজ কর্মসূচি চলমান থাকবে।”


আরও পড়ুন- কীভাবে পাবেন বুস্টার ডোজ? জেনে নিন নিয়ম


এছাড়া, আগের টিকা কার্ডের মাধ্যমেও বুস্টার ডোজ নেওয়া যাবে বলে জানান তিনি।

বুস্টার ডোজের টিকা নিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, “বেশ কয়েক ধরনের ভ্যাকসিন আমরা দিয়েছি। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) প্রটোকল অনুযায়ী এসব দিয়েছি। বুস্টার ডোজও আমরা ডব্লিউএইচও'র প্রটোকল অনুযায়ী দেবো। প্রাথমিক পর্যায়ে আমরা ফাইজারের টিকা দেবো। ডব্লিউএইচও বলেছে, যারা অন্যান্য টিকা নিয়েছে তারাও বুস্টার হিসেবে ফাইজারের টিকা নিতে পারবে। আমরা শুনেছি মডার্নাও বুস্টার ডোজ হিসেবে দেওয়া যায়। আমাদের স্টকেও মডার্নার টিকা আছে।”

প্রসঙ্গত, রবিবার বেলা ১২টার দিকে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ নার্স রুনু ভেরোনিকা কস্তাকে টিকা দেওয়ার মধ্য দিয়ে মহাখালীর বাংলাদেশ কলেজ অব ফিজিশিয়ানস অ্যান্ড সার্জনস (বিসিপিএস) থেকে বুস্টার ডোজ টিকার কার্যক্রম শুরু হয়। এ সময় পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন, স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক, আইনমন্ত্রী আনিসুল হকও বুস্টার ডোজ নেন।

প্রাথমিকভাবে বুস্টার ডোজ হিসেবে ফাইজারের টিকা দেওয়া হবে বলে জানা গেছে।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, প্রথমে সম্মুখসারির ব্যক্তিদের (চিকিৎসক, নার্স, সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী, গণমাধ্যমকর্মী ও ষাটোর্ধ্ব ব্যক্তি) বুস্টার ডোজের আওতায় আনা হবে। পর্যায়ক্রমে অন্যরাও বুস্টার ডোজ পাবেন।

উল্লেখ্য, দেশের প্রায় সাত কোটি মানুষকে টিকার প্রথম ডোজ ও প্রায় সাড়ে চার কোটি মানুষকে দ্বিতীয় ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে। এরই মধ্যে ৩০% মানুষকে দুই ডোজ করে টিকা দেওয়া হয়েছে।

About

Popular Links