Friday, May 24, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

কক্সবাজারে ট্যুরিস্ট পুলিশের হাতে ঢাকা ট্রিবিউনের প্রতিনিধি লাঞ্ছিত

বৃহস্পতিবার বিকাল ৫টার দিকে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের লাবণী পয়েন্টে এ ঘটনা ঘটে

আপডেট : ৩১ ডিসেম্বর ২০২১, ০৯:২৯ এএম

কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে পর্যটকদের ছবি তুলতে গিয়ে ট্যুরিস্ট পুলিশের হাতে লাঞ্ছিত হয়েছেন ঢাকা ট্রিবিউনের কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধি আবদুল আজিজ। এ সময় ট্যুরিস্ট পুলিশের এক কর্মকর্তা তার মুঠোফোন কেড়ে নিয়ে যান।

বৃহস্পতিবার (৩০ ডিসেম্বর) বিকাল ৫টার দিকে সমুদ্র সৈকতের লাবণী পয়েন্টে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় কক্সবাজার ট্যুরিস্ট পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এএসপি) মো. মহিউদ্দিন আহমেদ ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন।

কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে বিদেশি পর্যটকের আনাগোনা একেবারে কমে যায়। হঠাৎ তিনজন বিদেশি পর্যটক সাগরে নেমে পড়েন। এ সময় সৈকত ভ্রমণে আসা অনেক পর্যটক ওই বিদেশিদের ছবি তুলছিলেন। পরে সাংবাদিকরা এএসপির অনুরোধে ছবি ও ভিডিও ধারণ করতে গেলে এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী বৈশাখী টিভির কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধি নেছার আহমদ বলেন, “বিকেলে কয়েকজন বিদেশি পর্যটক সমুদ্র সৈকতের লাবণী পয়েন্টে আসেন। তাদের দেখে ছবি তুলে সাংবাদিকদের ইতিবাচক সংবাদ করার অনুরোধ করেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. মহিউদ্দিন আহমেদ। তখন সাংবাদিকরা পর্যটকদের ছবি তুলছিলেন। তাদের সঙ্গে ছবি তুলছিলেন ঢাকা ট্রিবিউনের কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধি আবদুল আজিজও। তাকে ছবি তুলতে দেখে দৌড়ে এসে ধাক্কা দেন সৈকতে দায়িত্বরত ট্যুরিস্ট পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) আব্দুল মান্নান। তাকে লাঞ্ছিত করে হাতের মুঠোফোনটিও কেড়ে নেন ওই পুলিশ কর্মকর্তা।”

ঢাকা ট্রিবিউনের কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধি আবদুল আজিজ বলেন, “পর্যটকদের ছবি তোলার সময় এসআই আব্দুল মান্নান আমাকে লাঞ্ছিত করে আমার মোবাইল ফোন কেড়ে নেন। কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেন, পর্যটকদের ছবি তোলা যাবে না। ট্যুরিস্ট পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের অনুরোধে বিদেশি পর্যটকদের ছবি উঠানোর বিষয়টি তাকে জানালে তিনি কেড়ে নেওয়া মোবাইলটি সামান্য দূরে উপস্থিত ট্যুরিস্ট পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. মহিউদ্দিন আহমেদকে জমা দেন। এ সময় মো. মহিউদ্দিন আহমেদকে বিষয়টি জানালে তখন তিনি এসে মোবাইলটি আমাকে বুঝিয়ে দেন। সেই সঙ্গে এ ঘটনার জন্য তিনি দুঃখপ্রকাশও করেন।”

ঘটনা সম্পর্কে জানতে চাইলে কক্সবাজার ট্যুরিস্ট পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মহিউদ্দিন আহমেদ ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, “এসআই আব্দুল মান্নানের কাছে এমন আচরণ আমরা প্রত্যাশা করিনি। কেন তিনি এমন কাজ করেছেন তা আমাদের বোধগম্য নয়। এ জন্য আমি লজ্জিত। এ ঘটনায় আমি দুঃখপ্রকাশ করছি।”

তিনি আরও বলেন, “জেলা ট্যুরিস্ট পুলিশ সুপার মো. জিল্লুর রহমান স্যার ট্যুরিস্ট পুলিশের সব সদস্যকে সৈকতে আসা সবার সঙ্গে ভালো ব্যবহার করতে নির্দেশ দিয়েছেন। এরপরও কেন এসআই আব্দুল মান্নান সাংবাদিকের সঙ্গে এমন আচরণ করেছেন, সে বিষয়টি আমি এসপি স্যারকে জানাবো। তিনি এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেবেন।”

About

Popular Links