Saturday, June 15, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

অ্যাটর্নি জেনারেল: ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের সব মামলা চলবে

সম্প্রতি আইনমন্ত্রী জানান, ২০২৩ সালের ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলার সংখ্যা ৭,০০১টি

আপডেট : ০৮ আগস্ট ২০২৩, ১২:০২ এএম

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন-২০১৮ পরিবর্তন করে নতুন আইন করার সিদ্ধান্ত নিলেও এই আইনে চলমান মামলাগুলো বাতিল হবে না বলে জানিয়েছেন অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন। একইসঙ্গে মামলাগুলোর বিচার আগের আইনেই চলবে বলে জানান তিনি।

সোমবার (৭ আগস্ট) দুপুরে সুপ্রিম কোর্টে নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ কথা বলেন তিনি।

অ্যাটর্নি জেনারেল বলেন, ডিএসএর অধীনে চলমান মামলা বাতিল হবে না। আগের আইন অনুযায়ী বিচার চলবে।

তিনি বলেন, যখন কোনো আইন বাতিল বা সংশোধন করা হয় তখন একটি সংরক্ষণ ধারা দেওয়া হয়। 

তিনি আরও বলেন, যখন কোনো আইন বাতিল বা পরিবর্তন করা হয়, তখন একটি সেভিং ক্লোজ দেওয়া হয়। সেখানে বলা হয়, যে মামলাগুলো চলমান আছে সেই মামলাগুলোর ক্ষেত্রে ধরে নিতে হবে আইনটি বিলুপ্ত হয়নি।

এর আগে, সোমবার কালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার বৈঠকে বহুল আলোচিত ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন-২০১৮ বাতিলের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

এটি  “সাইবার নিরাপত্তা আইন-২০২৩” নামে প্রতিস্থাপিত হবে বলে জানা গেছে।

গণমাধ্যমের স্বাধীনতা, মুক্তচিন্তা ও মত প্রকাশের অধিকার সমুন্নত রাখা, সর্বোপরি মানুষের মৌলিক অধিকারের সুরক্ষা নিশ্চিতে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলে র্দীঘদিন ধরে দাবি জানিয়ে আসছিল সংশ্লিষ্টরা।

গত পাঁচ বছরে এই আইনে অনেকের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। সম্প্রতি আইনমন্ত্রী সংসদে জানান, ২০২৩ সালের ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত মামলার সংখ্যা ৭,০০১টি।

বুধবার আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছিলেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন-২০১৮ বাতিল বা পরিবর্তন করা হবে না। তবে আইনের অপব্যবহার রোধে এটি সংশোধন করার প্রক্রিয়া চলছে, যা আগামী সেপ্টেম্বরের মধ্যে সম্পন্ন হবে।

তবে সেমাবারের বৈঠকের পর আইনমন্ত্রী আনিসুল হক সাংবাদিকদের বলেন, “ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন পরিবর্তন করা হচ্ছে। এ আইনের বহু ধারা নতুন সাইবার নিরাপত্তা আইনে যুক্ত করা হবে। কিছু ধারায় বড় সংশোধনী আনা হবে। নতুন সাইবার নিরাপত্তা আইন চালু হলে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন থাকবে না।” 

তিনি জানান, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন পরিবর্তন করে নতুন যে সাইবার নিরাপত্তা আইন করা হবে সেখানে মানহানির মামলায় সাংবাদিকদের কারাদণ্ডের বিধান থাকবে না। পরিবর্তে জরিমানার বিধান করা হবে।

দেওয়ানি মামলায় যেভাবে জরিমানার বিষয়গুলো আছে, সেভাবেই সাংবাদিকতার ক্ষেত্রে বিষয়গুলো থাকবে বলেও জানান আইনমন্ত্রী।

তথ্যপ্রযুক্তি আইনের ৫৪, ৫৫, ৫৬, ৫৭ ও ৬৬-সহ মোট ৫টি ধারা বিলুপ্ত করে ২০১৮ সালের ১৮ সেপ্টেম্বর জাতীয় সংসদে কণ্ঠভোটে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ২০১৮ পাস হয়।

About

Popular Links