Sunday, June 16, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

ঢাকা ছাড়লেন ম্যাক্রোঁ

  • ঢাকা, প্যারিস দুটি দ্বিপাক্ষিক চুক্তি স্বাক্ষর করেছে
  • বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন তিনি
আপডেট : ১১ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ০৬:২৩ পিএম

দুই দিনের সফর শেষে ঢাকা ত্যাগ করেছেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রোঁ।

সোমবার (১১ সেপ্টেম্বর) বিকেল ৩টায় তাকে বহনকারী বিমানটি হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ছেড়ে যায়।

বিমানবন্দরে তাকে বিদায় জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন, তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ এবং সাবের হোসেন চৌধুরী।

সফরে ম্যাক্রোঁ গতানুগতিকতার বাইরে গিয়ে একজন সঙ্গীত শিল্পীর বাড়ি যান। সেখানে বাংলাদেশের লোকসংগীত উপভোগ করেন। এরপর তিনি ঢাকার পাশে তুরাগ নদীতে ভ্রমণ করেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে বাংলাদেশের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় ফ্রান্সের সমর্থনের আশ্বাস দেন ম্যাক্রোঁ।

বৈঠকে নগর পৌরসভা ব্যবস্থাপনা, প্রথমবারের মতো পৃথিবী পর্যবেক্ষণ স্যাটেলাইট নির্মাণ সংক্রান্ত দুটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। বাংলাদেশ ফ্রান্সের কাছ থেকে নতুন ১০টি এয়ারবাস কেনার প্রতিশ্রুতি দেয়।

৩৩ বছর পর এটাই প্রথম কোনো ফরাসি প্রেসিডেন্টের বাংলাদেশ সফর। সর্বশেষ ১৯৯০ সালের ২২ ফেব্রুয়ারি ফ্রান্সের তৎকালীন প্রেসিডেন্ট মিত্রান্দের বাংলাদেশ সফরে এসেছিলেন।

ম্যাক্রোঁর সফরের আগে এলিসি প্রেসিডেন্সিয়াল প্যালেস বলেছিল, “আজ, আমরা আমাদের সামনে একটি উদীয়মান দেশ দেখতে পাচ্ছি। যেটি বাকি বিশ্বের দিকে তাকিয়ে আছে। ২০৩০ সালের মধ্যে এই দেশ বিশ্বের ৩০টি বৃহত্তম অর্থনীতির একটিতে পরিণত হওয়ার ক্ষমতা রাখে। বর্তমানে তাদের যে অগ্রগতি রয়েছে সেটিকে সহায়তা করার লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে।”

তার সম্মানে নৈশভোজের সময় ম্যাক্রোঁ পরিবেশ সংরক্ষণে প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বের প্রশংসা করেন। তিনি বলেন, “আপনি গ্রিনহাউস গ্যাস নির্গমনের জন্য প্রধানত দায়ী দেশগুলো থেকে যেসব সহায়তা প্রয়োজন তা পেতে বাংলাদেশকে সহায়তা করা হবে।”

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে তিনি ধানমন্ডি-৩২-এ বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘরও পরিদর্শন করেন।

রবিবার রাতে তিনি ঢাকায় আসেন। বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রী তাকে স্বাগত জানান।

বৈশ্বিক প্রেক্ষাপট ও অভ্যন্তরীণ পরিস্থিতি বিবেচনায় ফ্রান্সের প্রেসিডেন্টের বাংলাদেশ সফর অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ হিসেবে দেখা হচ্ছে। ম্যাক্রোঁর এই সফরের মাধ্যমে ঢাকা ও প্যারিসের মধ্যকার সম্পর্ক নতুন গতি পাবে বলে আশা করা হচ্ছে।

About

Popular Links