Thursday, May 30, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

৩৫০ সিসির মোটরসাইকেল: যা জানা জরুরি

বিখ্যাত ব্রিটিশ মোটরসাইকেল ব্র্যান্ড রয়্যাল এনফিল্ডের উৎপাদনের জন্য ইফাদ মোটরস ইতিমধ্যেই ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাশে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে একটি কারখানা স্থাপন করছে

আপডেট : ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ১২:৪৩ পিএম

অনেক জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে বহুল প্রত্যাশিত ৩৫০ সিসি (ইঞ্জিন ক্ষমতা) পর্যন্ত মোটরসাইকেল চলাচলের অনুমতি দিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। কয়েক বছর ধরে আলাপ-আলোচানার পর গত ৭ সেপ্টেম্বর মন্ত্রণালয়ের এক বৈঠকে আনুষ্ঠানিকভাবে এ সিদ্ধান্তের কথা জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

মোটরসাইকেলের ইঞ্জিন ক্ষমতা বা সিসি সীমা ৩৫০ পর্যন্ত বাড়ানোর সুপারিশ করে বাংলাদেশ ট্রেড অ্যান্ড ট্যারিফ কমিশন (বিটিটিসি)। সরকারের এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে মোটরসাইকেল আমদানি ও প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠানগুলো।

বাংলাদেশের অন্যতম জনপ্রিয় বাইকিং কমিউনিটি বাইক বিডির সিনিয়র এডিটর আরিফ রায়হান ওপু বলেন, “২০০০ সালের দিকে বা এর আগে বাইকের ওপর সিসি সীমা ছিল না। একটা সময় বাইকাররা উচ্চ সিসির বাইক আমদানি করেছেন; যা এখন সম্ভব না। তবে আমরা আশা করছি ভবিষ্যতে সরকার বাইকের সিসি সীমা তুলে দেবে।”

রয়্যাল এনফিল্ড/পেক্সেলস

কাদের জন্য ৩৫০ সিসির বাইক

দেশের বাইক কমিউনিটির অন্যতম পরিচিত মুখ ও এমএসআই ভ্লগের কনটেন্ট নির্মাতা সৈয়দ মোহাম্মদ ইকবাল ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, “কেউ কেউ প্রয়োজনে বাইক চালান আবার অনেকে শখ করে বাইক চালান। আমরা নিশ্চয়ই এটা আশা করবো না, যে কেউ ৩৫০ সিসির বাইক বাজারজাত করতে পারবেন। যারা বাইকের প্রতি খুবই প্যাসনেট তারা অবশ্যই বাইকগুলো নিজেদের সংগ্রহে রাখার চেষ্টা করবেন। আমরা কোম্পানিগুলোর কাছে আফটার সেল সার্ভিস এবং সর্বোচ্চ গ্রাহক সেবা আশা করবো।”

উচ্চ সিসি সম্পন্ন বাইক যেমন উচ্ছ্বসিত করেছে বাইকারদের তেমনি আবার চিন্তার ভাঁজও পড়েছে তাদের কপালে। এই শক্তিশালী বাইকগুলোর পার্টস এবং সার্ভিসিং কতটা ব্যয়বহুল হবে এবং দেশে পর্যাপ্ত পরিমাণে সার্ভিস সেন্টার পাওয়া যাবে কিনা এ বিষয়ে দ্বিধায় রয়েছেন অনেকে।

অভিজ্ঞ কনটেন্ট ক্রিয়েটর নাভিদ ইশতিয়াক তরু বলেন, “আমাদের দেশে যেসব সার্ভিস সেন্টার ও টেকনিশিয়ান আছেন তারা খুবই অভিজ্ঞ। তবে ঢাকার বাইরে বাইক সার্ভিসের ক্ষেত্রে অনেকেরই সমস্যায় পড়তে হয়। নতুন বাইকগুলো বাজারে ঢোকার পর প্রথম ৬-৭ মাস হয়তো মানিয়ে নিতে সমস্যা হবে। তবে দিন গড়ালে আমরা সর্বোচ্চ সেবা পেতে শুরু করবো বলে আশা করছি।”

বাংলাদেশে কবে পাওয়া যাবে ৩৫০ সিসির বাইক

বিখ্যাত ব্রিটিশ মোটরসাইকেল ব্র্যান্ড রয়্যাল এনফিল্ডের উৎপাদনের জন্য ইফাদ মোটরস ইতিমধ্যেই ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাশে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে একটি কারখানা স্থাপন করছে।

ইফাদ গ্রুপের চেয়ারম্যান ইফতেখার আহমেদ টিপু ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, “আমাদের লক্ষ্য ২০২৪ সালের জুলাইয়ের মধ্যে রয়্যাল এনফিল্ড বুলেট, মিটিওর, হান্টার ও ক্লাসিক নামে ৪টি মডেল বাংলাদেশের বাজারে বাণিজ্যিক উৎপাদন ও বিতরণ শুরু করা।”

তিনি আরও বলেন, “রয়্যাল এনফিল্ড উৎপাদনের জন্য এখন পর্যন্ত ১৫০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছে। রয়েল এনফিল্ড উৎপাদনে ৩০-৩৫% যন্ত্রপাতি বাংলাদেশে তৈরি হবে এবং এর সার্বিক তত্ত্ববধানে থাকবেন আ আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞরা।”

ইফাদ গ্রুপের ভাইস চেয়ারম্যান তাসকিন আহমেদ জানান, রয়েল এনফিল্ড ব্র্যান্ডের উচ্চ সিসির আইকনিক মোটরসাইকেলের প্রতি বাইকারদের অনেক আগ্রহ এবং উন্মাদনা রয়েছে। বিষয়টি মাথায় রেখে দ্রুততম সময়ের মধ্যে তারা তাদের উৎপাদিত মোটরসাইকেল দেশের বাজারে ছাড়ার পরিকল্পনা করছেন।

তিনি বলেন, “এর আগে দেশের বাজারে ১৬৫ সিসির বেশি ইঞ্জিন সক্ষমতার মোটরসাইকেলের অনুমোদন ছিল না। নতুন এ সিদ্ধান্তের পর ইফাদ গ্রুপ ছাড়াও অন্যান্য কোম্পানির উচ্চ সিসির মোটরসাইকেল এখন স্থানীয় বাজারে প্রবেশ করাতে পারবে।”

About

Popular Links