Saturday, May 25, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

বরগুনায় পুলিশের হাতে সাংবাদিক 'লাঞ্ছিত'

বরগুনার ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার মো. তোফায়েল আহম্মেদ ঢাকা ট্রিবিউনকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আপডেট : ০২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০৪:১৩ পিএম

বরগুনায় চলমান এসএসসি পরীক্ষা কেন্দ্রে সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়ে পুলিশের লাঞ্ছনার শিকার হয়েছেন বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল ডিবিসি নিউজ ও ডেইলি অবজারভারের বরগুনা প্রতিনিধি মালেক মিঠু। 

এ ঘটনায় সঙ্গে জড়িত অভিযোগে পুলিশের গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) মো. রিপন মিয়াকে ক্লোজড করা হয়েছে।

আজ শনিবার দুপুর ১টায় বরগুনার ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার মো. তোফায়েল আহম্মেদ ঢাকা ট্রিবিউনকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে ঘটনায় নিন্দা জানিয়ে বরগুনা প্রেসক্লাবে জরুরী সভা করে বরগুনা জেলা টেলিভিশন সাংবাদিক ফোরাম। ফোরামের পক্ষ থেকে সাধারণ সম্পাদক আবু জাফর মো. সালেহ লিখিতভাবে পুলিশ সুপারের (এসপি) কাছে অভিযোগ দায়ের করেন ওই পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে। অভিযোগ পেয়ে তাৎক্ষণিক ডিবির এএসআই রিপনকে পুলিশ লাইনে ক্লোজড করা হয়। 

শারীরিকভাবে লাঞ্ছনার শিকার সাংবাদিক মালেক মিঠু ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, 'শনিবার সকাল ৯টার দিকে সংবাদ সংগ্রহের জন্য বরগুনা জিলা স্কুলের এসএসসির পরীক্ষাকেন্দ্রে যাই। এসময় এক পুলিশ কর্মকর্তা আমাকে গেটের ভিতরে ঢুকতে দিলেও হঠাৎ করে ডিবির সহকারি উপপরিদর্শক মো. রিপন মিয়া আমাকে কেন্দ্রে ঢুকতে বাধা দেন। কী কারণে বাধা দিচ্ছে, সে বিষয়ে জানতে চাইলে উনি আমাকে সবার সামনে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেন।' 

মিঠু অভিযোগ করে আরও বলেন, 'বিষয়টি আমি তাৎক্ষণিক বরগুনা সদর থানায় ও সাংবাদিকদের জানালে ঘটনাস্থলে বরগুনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবির মোহাম্মদ হোসেন ও পরিদর্শক (তদন্ত) মো. রফিকুল ইসলাম আসেন। এসময় তাদের সামনেই এএসআই রিপন আবারো আমাকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেন।' 

এ বিষয়ে ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার মো. তোফায়েল আহম্মেদ  ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, এ ঘটনায় তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। অভিযোগের সত্যতা পেলে রিপনের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। 

এসময় এসপি তোফায়েল সাংবাদিকদের ওপর হামলার নিন্দা জানান।

About

Popular Links