Wednesday, May 29, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

‘ঢাকাসহ প্রধান শহরগুলোর বৈদ্যুতিক তার আন্ডারগ্রাউন্ডে নেওয়া হবে’

ঢাকার রাস্তায় ঝুলন্ত তার আর জলাবদ্ধতার ঘটনা নতুন কিছু নয়। ঝুলন্ত তার থেকে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হওয়া, আগুন লাগার মতো দুর্ঘটনার আশঙ্কা নিয়ে এর আগে নানা সমালোচনা হলেও খুব একটা পরিবর্তন আসেনি

আপডেট : ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ১২:৩২ পিএম

আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগকে নির্বাচিত করলে ঢাকাসহ দেশের প্রধান শহরগুলোর বৈদ্যুতিক তার আন্ডারগ্রাউন্ডে নিয়ে যাওয়ার প্রতিশ্রুতি দিলেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ।

বৃহস্পতিবার (২৮ সেপ্টেম্বর) ধানমন্ডি ৩ নম্বর রোডে ডিপিডিসির জিটুজি প্রকল্পের ভূগর্ভস্থ বিদ্যুৎ বিতরণ ব্যবস্থার চলমান কাজের অগ্রগতি পরিদর্শন শেষে এ কথা বলেন তিনি।

নসরুল হামিদ বলেন, “আন্ডারগ্রাউন্ড করার ফলে লোড নিয়ে কাজ করা যায়, লোড কন্ট্রোল করা যায়, সর্বোপরি গ্রাহকসেবার মান উন্নত হয়। আমাদের পরবর্তী লক্ষ্য পুরো ঢাকাসহ দেশের বড় শহরগুলোকে আন্ডারগ্রাউন্ড ক্যাবলে নিয়ে যাওয়া। এরইমধ্যে পরিকল্পনা করা হয়ে গেছে। কোভিডের কারণে আমরা পিছিয়ে গিয়েছিলাম, তাই এখন দ্রুতগতিতে সব সম্পন্ন করতে হচ্ছে।”

ধানমন্ডি ৩ নম্বর রোডের সব তার সরিয়ে ফেলা হয়েছে; তারগুলো মাটির নিচ দিয়ে চলে গেছে। এই প্রকল্পটি ৪ বছর আগে গ্রহণ করা হয়েছিল।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, “তারের জন্য গাছ কাটতে হতো, ঝড়ে তার ছিঁড়ে যেত। ফলে বিভিন্ন স্থানে কয়েক ঘণ্টা বিদ্যুৎ থাকতো না। তবে তার আন্ডারগ্রাউন্ড করার ফলে সেসবের আর আশঙ্কা নেই, এতে করে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ নিশ্চিত করা সম্ভব।”

তিনি বলেন, “বিদ্যুতের তার আন্ডারগ্রাউন্ড হলেও ক্যাবল টিভি ও ইন্টারনেটের তারগুলো আন্ডারগ্রাউন্ড হয়নি। আমরা সংশ্লিষ্টদের বলেছি দ্রুত যেন তারাও আন্ডারগ্রাউন্ডে চলে যায়। এতে করে শহরের সৌন্দর্য বাড়বে।”

ঢাকার রাস্তায় ঝুলন্ত তার আর জলাবদ্ধতার ঘটনা নতুন কিছু নয়। ঝুলন্ত তার থেকে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হওয়া, আগুন লাগার মতো দুর্ঘটনার আশঙ্কা নিয়ে এর আগে নানা সমালোচনা হলেও খুব একটা পরিবর্তন আসেনি।

তবে সিটি কর্পোরেশন এবং ঢাকা পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি অবশ্য দাবি করছে যে, এসব সমস্যা সমাধানে তারা কাজ করে যাচ্ছেন তারা এবং এরইমধ্যে কিছুটা উন্নতিও হয়েছে।

ঢাকা শহর থেকে ঝুলন্ত তার সরানোর লক্ষ্যে ২০২০ সালের আগস্টে অভিযান শুরু করা হয়েছিল সিটি কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে। তবে সেটি কেবল অপারেটরদের চাপের মুখে বন্ধ হয়ে যায়। প্রায় একই সময়ে হাতে নেওয়া হয়েছিল মাটির নিচ দিয়ে বিদ্যুতের তার নেওয়ার প্রকল্পও। তবে সেটিও দীর্ঘ সময় পর্যন্ত আটকে ছিল।

About

Popular Links