Sunday, May 26, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

বিদেশে যেতে না পেরে ট্রাভেল এজেন্সির মালিককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ

নিহত বাহারের স্ত্রী বলেন, আমার ছোট বোনের স্বামীর জন্য কাতারের ভিসার ব্যবস্থা করেছিলেন বাহার। আজ তার যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু জটিলতার কারণে তার ফ্লাইট মিস হয়। এ কারণে আমার বোন, বোনের স্বামী ও আমার ভাই বাহারকে মারধর করে

আপডেট : ১৪ অক্টোবর ২০২৩, ০৮:৩৮ পিএম

বিদেশে যেতে না পেরে ঢাকায় মোহাম্মদ বাহার (৪৫) নামে এক ট্রাভেল এজেন্সির মালিককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। অভিযুক্তরা বাহারের নিকটাত্মীয়।

শনিবার (১৪ অক্টোবর) বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে কাকরাইল শান্তিনগর প্লাজার এম বাহার ওভারসিসের (ট্রাভেল এজেন্সি) অফিসে এ ঘটনা ঘটে।

রমনা পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক (এসআই) শহিদুল উসমান মাসুম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

বাহারের বাড়ি নোয়াখালীর সোনাইমুড়ী উপজেলায়; যাত্রাবাড়ীর কাজলায় ভাড়া বাসায় পরিবারসহ বসবাস করতেন তিনি।

বাহারের স্ত্রী জয়নব বলেন, “বাহার তার এক বন্ধুর কাছ থেকে আমার ছোট বোন ফাতেমার স্বামী জাকিরের জন্য কাতারের ভিসার ব্যবস্থা করেছিলেন। আজ তার যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু জটিলতার কারণে তার ফ্লাইট মিস হয়। এ কারণে ফাতেমা, তার স্বামী জাকির এবং আমার ভাই ইউনুস ক্ষিপ্ত হয়ে অফিসে গিয়ে বাহারকে মারধর করে। গলা টিপে ধরে। এতে বাহার অজ্ঞান হয়ে পড়েন।”

তিনি আরও বলেন, “বাহারকে সেখান থেকে উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় ইসলামিয়া হাসপাতাল, পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক বিকেল ৫টা ২০ মিনিটের দিকে বাহারকে মৃত ঘোষণা করেন।”

পুলিশ কর্মকর্তা শহিদুল উসমান মাসুম বলেন, “প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, মারামারির ঘটনায় বাহার আহত হয়ে মারা গেছেন। বিষয়টি তদন্ত করে দেখছি। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদনের পর মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে। মরদেহ ঢামেক হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।”

About

Popular Links