Wednesday, May 22, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

মোংলায় পশুর নদীতে ক্লিংকারবাহী লাইটার জাহাজডুবি

জহাজটিতে থাকা ১০ নাবিক সাঁতরে নদীর তীরে ওঠেন

 

 

 

আপডেট : ১৬ অক্টোবর ২০২৩, ০৯:৪৫ এএম

মোংলা বন্দরের পশুর নদীতে সাড়ে ৮০০ মেট্রিক টন ক্লিংকারবোঝাই (সিমেন্টের কাঁচামাল) একটি লাইটার জাহাজ ডুবে গেছে। রবিবার (১৫ অক্টোবর) রাত সাড়ে ৮টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এ সময় “আনমনা-২” নামের জাহাজটিতে থাকা ১০ নাবিক সাঁতরে নদীর তীরে ওঠেন।

জাহাজটির মাস্টার এনায়েত হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে অনলাইন সংবাদমাধ্যম বাংলা ট্রিবিউন।

এনায়েত হোসেন জানান, বন্দরের চার নম্বর বয়ায় অবস্থান করা বাংলাদেশি পতাকাবাহী মার্চেন্ট শিপ “এমভি জাহান ব্রাদার্স'” থেকে সাড়ে ৮০০ মেট্রিক টন ক্লিংকার বোঝাই করে রবিবার বিকেলে পশুর নদীর কাইনমারী এলাকায় নোঙর করেন তারা। সেখান থেকে খুলনার রূপসা নদীর পাড়ে সুনসিং কোম্পানির “সেভেন রিংস” সিমেন্ট ফ্যাক্টরিতে রওনা হওয়ার সময় রাত সাড়ে ৮টায় জাহজটি টার্নিং করতে গেলে তলা ফেটে ডুবে যায়।

এদিকে মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের হারবার বিভাগ জানিয়েছে, গত ১৩ অক্টোবর ২৬ হাজার ৫০০ মেট্রিক টন ক্লিংকার নিয়ে বন্দরের চার নম্বর বয়ায় নোঙর করে মার্চেন্ট শিপ জাহান ব্রাদার্স। রবিবার ওই জাহাজ থেকে এমভি আনমনা-২ নামে একটি কার্গো জাহাজ সড়ে ৮০০ মেট্রিক টন ক্লিংকার বোঝাই করে। রাতে দুর্ঘটনার পর ঘটনাস্থলে বন্দরের মুরিং বোট এমভি হিরা নামে একটি জলযান রওনা হয়েছে।

বন্দরে নৌচ্যানেল নিরাপদ রয়েছে বলেও জানায় হারবার বিভাগ।

About

Popular Links