Wednesday, May 22, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

ভিডিও বার্তায় শ্বশুরবাড়িতে নির্যাতনের অভিযোগ করে গৃহবধূর ‘আত্মহত্যা’

ভিডিও বার্তায় ওই গৃহবধূ স্বামী, শ্বশুর, শাশুড়ি ও দাদি শাশুড়ির বিরুদ্ধে নির্যাতনের অভিযোগ করেন

আপডেট : ২০ অক্টোবর ২০২৩, ১১:৫৭ পিএম

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে ভিডিও বার্তায় শ্বশুর বাড়ির লোকজনের নির্যাতনের শিকার হওয়ার অভিযোগ করে মারজান আক্তার (২১) নামে এক গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছেন বলে খবর পাওয়া গেছে।

শুক্রবার (২০ অক্টোবর) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার বসুরহাট পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডে ওই গৃহবধূর বাবার বাড়ি থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।

মারজান আক্তার কোম্পানীগঞ্জের বসুরহাট পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা আবু নাছেরের মেয়ে।

“আত্মহত্যার” আগে এক ভিডিও বার্তায় ওই গৃহবধূ স্বামী, শ্বশুর, শাশুড়ি ও দাদি শাশুড়ির বিরুদ্ধে নির্যাতনের অভিযোগ করেন। তার বাবা ওই ভিডিওটি পুলিশের কাছে জমা দিয়েছেন।

পুলিশ জানায়, বেলা সাড়ে ১১টার দিকে মারজানের বাবা তার কক্ষের দরজা খুলে মেয়েকে ফাঁস লাগানো অবস্থায় দেখতে পান। তাকে উদ্ধার করে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে পুলিশ তার মরদেহ উদ্ধার করে।

নিহত গৃহবধূর বাবা আবু নাছের অভিযোগ করে বলেন, “মারজানের শ্বশুরবাড়ি লক্ষ্মীপুরে। চার দিন আগে স্বামীর বাড়ি থেকে মারজান তাদের বাড়িতে আসে। শ্বশুরবাড়ির সদস্যদের মানসিক নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে গলায় ফাঁস দিয়ে ‘আত্মহত্যা’ করেছেন তিনি। ফাঁস দেওয়ার আগে মেয়ে তার মুঠোফোনে এক ভিডিও করে মৃত্যুর জন্য তার স্বামী, শ্বশুর, শাশুড়ি ও দাদি শাশুড়িকে দায়ী করে গেছেন। তিনি ভিডিও বার্তাটি পুলিশের কাছে দিয়েছেন।”

কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রণব চৌধুরী বলেন, “স্থানীয় লোকজনের তথ্যের ভিত্তিতে বাবার বাড়ি থেকে গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। লাশটি থানায় রাখা হয়েছে। কাল সকালে ময়নাতদন্তের জন্য ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হবে।”

তিনি বলেন, “ওই গৃহবধূর একটি ভিডিও তিনি পেয়েছেন। এ ঘটনায় আত্মহত্যার প্ররোচনায় থানায় মামলা হয়েছে।”

About

Popular Links