Saturday, May 18, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

মহাখালীতে আগুন: চারজন বার্ন ইনস্টিটিউটে, নিখোঁজ একজন

এ ঘটনায় এক নারীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে

আপডেট : ২৭ অক্টোবর ২০২৩, ১২:০৪ এএম

রাজধানী ঢাকার মহাখালীর ১৪ তলাবিশিষ্ট খাজা টাওয়ারে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ধোঁয়ায় অসুস্থ চারজনকে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের জরুরি বিভাগে নিয়ে আসা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৬ অক্টোবর) রাত ৯টার দিকে প্রথমে দুজনকে জরুরি বিভাগে নিয়ে আসা হয়। তারা হলেন- সৈয়দ মেহেদী হাসান (২৭) ও কাজী তাহাসিন রাকিব (২৩)। পরে এইচ এম আব্দুস সবুর (৪৫) ও রফিকুল ইসলাম (৪৫) নামে আরও দুজনকে হাসপাতালে আনা হয়।

আগুনের ঘটনায় আকলিমা রহমান নামে এক তরুণীর সন্ধান পাওয়া যাচ্ছে না বলে দাবি করেছে পরিবার। আকলিমা খাজা টাওয়ারের নবম তলায় রেশ অনলাইন লিমিটেডে কাজ করতেন।

এ ঘটনায় হাসনা হেনা (২৭) নামে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। তবে আগুনে নয় আতঙ্কে দড়ি বেয়ে নামতে গিয়ে দুর্ঘটনাবশত নিচে পড়ে তার মৃত্যু হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে।

নিহত হাসনা হেনা ওই ভবনে অরবিট নামের একটি ইন্টারনেট সার্ভিস কোম্পানির সেলসে কাজ করতেন। তার বাড়ি গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে।

আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিসের ১২টি ইউনিট। আগুন নির্বাপণে ফায়ার সার্ভিসের সঙ্গে যোগ দিয়েছে সেনাবাহিনী, নৌবাহিনী ও বিমান বাহিনী। খাজা টাওয়ারের বিভিন্ন ফ্লোরের জানালার গ্লাস ভেঙে আটকে পড়া উদ্ধারের চেষ্টা করছে তারা।

বৃহস্পতিবার ‍বিকেলে ওই ভবনে আগুন লাগে। ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের মিডিয়া শাখার কর্মকর্তা শাহজাহান শিকদার  সাংবাদিকদের বিষিয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, “বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টা ৫৮ মিনিটে খাজা টাওয়ারের ১৩ তলায় আগুন লাগার খবর পাওয়া যায়। ৫টা ৭ মিনিটে ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ শুরু করেন ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা।”

তিনি আরও বলেন, “আগুন লাগার খবর পেয়ে ১৪ তলা ওই ভবনে থাকা অনেকেই ছাদে অবস্থান নেন। তাদের উদ্ধারে কাজ করছেন ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। আগুন নিয়ন্ত্রণে এলে পরে এ বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য জানানো সম্ভব হবে।”

About

Popular Links