Saturday, June 22, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

হরতালের কারণে ঢাকা থেকে ছাড়ছে না দূরপাল্লার বাস

কাউন্টার মালিকেররা জানিয়েছেন, ‘আতঙ্ক ও যাত্রী সংকটের’ কারণে রাজধানী থেকে দূরপাল্লার গণপরিবহন চলছে না

আপডেট : ২৯ অক্টোবর ২০২৩, ১২:১৬ পিএম

বিএনপি-জামায়াতের ডাকা হরতালের কারণে রাজধানীর বিভিন্ন বাসটার্মিনাল থেকে দূরপাল্লার বাস ছাড়ছে না। কাউন্টার মালিকেররা জানিয়েছেন, “আতঙ্ক ও যাত্রী সংকটের” কারণে রাজধানী থেকে দূরপাল্লার গণপরিবহন চলছে না। সড়কে পরিবহনটিতে আগুন বা ভাঙচুরের ঘটনা ঘটবে কি-না; তা নিয়ে শঙ্কা যাত্রী ও পরিবহন শ্রমিকদের মধ্যে।

রবিবার (২৯ অক্টোবর) সকাল থেকে রাজধানীর বিভিন্ন বাস টার্মিনালগুলোতে এমন চিত্র দেখা গেছে। যদিও হরতাল প্রত্যাখ্যানের ঘোষণা দিয়েছে ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতি।

সংগঠনটি এক বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, ঢাকা শহর ও ঢাকার আশে পাশের জেলাগুলোতে বাস-মিনিবাস চলাচল অব্যাহত রাখবে। তবে যাত্রী পাওয়া সাপেক্ষে আন্তঃজেলা রুটে গাড়ি চলাচল করবে।

অনলাইন সংবাদমাধ্যম বাংলা ট্রিবিউনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রাজধানীর গাবতলী, কল্যাণপুর ও মহাখালী বাস টার্মিনাল থেকে দূরপাল্লার গণপরিবহন তেমন একটা ছাড়ছে না। আতঙ্ক ও যাত্রী সংকটের কারণে সকাল থেকে দূরপাল্লার অনেক গণপরিবহন রাজধানী থেকে ছেড়ে যায়নি।

বিভিন্ন গণপরিবহনের চালক, সুপারভাইজার ও হেলপাররা জানিয়েছেন, সকাল থেকেই যাত্রী সংখ্যা কম। আর কম যাত্রী নিয়ে গাড়ি ছাড়লে কোনো লাভ নেই, পুরোটাই লস। আর সড়কে যেকোনো ধরণের অঘটন ঘটলে সবার জীবনে শঙ্কা তৈরি হয়। তাই চালক, হেলপার ও সুপারভাইজারদের মধেও গাড়ি নিয়ে নির্দিষ্ট গন্তব্যে যেতে অনীহা দেখা যায়।

তবে হরতালের শেষ দিকে বিকেলের পর থেকে বা সন্ধ্যার পর থেকে যান চলাচল স্বাভাবিক হবে বলে আশা করছেন তারা।

হানিফ পরিবহনের কাউন্টার ম্যানেজার শাকিল বলেন, “সকাল থেকে দূরপাল্লার কোনো বাস ছেড়ে যায়নি। হরতালের কারণে আতঙ্ক কত কিছুটা রয়েছে। তবে গাড়ি না ছাড়ার পেছনে অন্যতম কারণ হচ্ছে যাত্রী কম। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে অবস্থা বুঝে গাড়ি ছাড়ার বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যাবে।”

এনা পরিবহনের কাউন্টার ম্যানেজার রায়হান বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, “এনা পরিবহনের যতগুলো কাউন্টার রয়েছে, সেসব কাউন্টার থেকে সকাল থেকেই বিভিন্ন দূরপাল্লার বাস ছেড়ে যাচ্ছে।”

শ্যামলী পরিবহনের কাউন্টার ম্যানেজার অনন্ত বলেন, “সকাল থেকে দূরপাল্লার কোনো বাস রাজধানী থেকে ছেড়ে যায়নি। শুধু আমাদের পরিবহন নয় অন্য কেউ তাদের বাস ছাড়েনি।”

পুলিশ সদর দপ্তরের মিডিয়া অ্যান্ড পিআর শাখার এআইজির দায়িত্বে থাকা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইনামুল হক সাগর জানিয়েছেন, চলাচলের ক্ষেত্রে কোনো ধরনের বাধার সম্মুখীন হলে বা আইনি সহায়তার প্রয়োজন হলে নিকটস্থ পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করতে বলা হচ্ছে।

About

Popular Links