Thursday, May 23, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

প্রতারণা মামলায় কারাগারে হেলেনা জাহাঙ্গীর

জয়যাত্রা টেলিভিশনের ভোলা জেলা প্রতিনিধি আবদুর রহমান তুহিন বাদী হয়ে ২০২১ সালের ২ আগস্ট প্রতারণা মামলাটি দায়ের করেন

আপডেট : ০২ নভেম্বর ২০২৩, ০২:১৪ পিএম

ঢাকার পল্লবী থানায় করা এক প্রতারণা মামলায় ব্যবসায়ী হেলেনা জাহাঙ্গীরের জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত। মামলায় তিনি দুই বছরের কারাদণ্ডপ্রাপ্ত

বৃহস্পতিবার (২ নভেম্বর) ঢাকার অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট তোফাজ্জল হোসেনের আদালতে তিনি আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করলে আদালত তার জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

সংশ্লিষ্ট আদালতের বেঞ্চ সহকারী আতিকুর রহমান সাংবাদিকদের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

প্রতারণা মামলায় গত ২০ মার্চ একই আদালত হেলেনা জাহাঙ্গীরসহ পাঁচ আসামির দুই বছরের কারাদণ্ড দেন। পাশাপাশি তাদের প্রত্যেককে ২ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও দুই মাস বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়। দণ্ডপ্রাপ্ত অন্য আসামিরা হলেন- হেলেনা জাহাঙ্গীরের আইপিটিভি জয়যাত্রা টেলিভিশনের মহাব্যবস্থাপক হাজেরা খাতুন, টেলিভিশনের সমন্বয়ক সানাউল্লাহ নূরী, প্রধান বার্তা সম্পাদক কামরুজ্জামান আরিফ ও স্টাফ রিপোর্টার মাহফুজুর রহমান।

রায় ঘোষণার দিন হেলেনা জাহাঙ্গীর আদালতে হাজির না হওয়ায় তাকে পলাতক দেখিয়ে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন আদালত।

জয়যাত্রা টেলিভিশনের ভোলা জেলা প্রতিনিধি আবদুর রহমান তুহিন বাদী হয়ে ২০২১ সালের ২ আগস্ট প্রতারণা মামলাটি দায়ের করেন।

২০২১ সালের ২ আগস্ট জয়যাত্রা টিভির প্রতিনিধি দাবি করা আবদুর রহমান নামের এক ব্যক্তি বাদী হয়ে হেলেনা জাহাঙ্গীরসহ কয়েকজনকে আসামি করে পল্লবী থানায় প্রতারণা ও চাঁদাবাজির মামলা করেন।

এতে অভিযোগ করা হয়, হেলেনা জাহাঙ্গীর তার মালিকানাধীন জয়যাত্রা টেলিভিশনে ভোলা প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়ার নামে বাদীর (আবদুর রহমান) কাছ থেকে ৫৪ হাজার টাকা নিয়েছেন। তিনি জয়যাত্রা টেলিভিশনে কয়েক মাস কাজ করেছেন। প্রতি মাসে তার কাছ থেকে তিন হাজার টাকা করে নিয়েছে জয়যাত্রা টেলিভিশন কর্তৃপক্ষ।

মামলায় ২০২১ সালের ২৯ ডিসেম্বর হেলেনা জাহাঙ্গীরসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেয় পুলিশ। আদালত গত বছরের ২২ এপ্রিল হেলেনা জাহাঙ্গীরসহ আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন। মামলায় রাষ্ট্রপক্ষে ১৩ জন সাক্ষীকে আদালতে হাজির করা হয়।

এর আগে ওই বছরের ২৯ জুলাই ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে মিথ্যাচার, অপপ্রচার, বিভ্রান্তিকর তথ্য ছড়িয়ে রাষ্ট্রীয় গুরুত্বপূর্ণ সংস্থা ও ব্যক্তিদের সম্মানহানি করার অভিযোগে হেলেনা জাহাঙ্গীরকে গ্রেপ্তার করে র‍্যাব। সে সময় তার গুলশানের বাসা থেকে বিপুল পরিমাণ বিদেশি মদ, ক্যাসিনো সরঞ্জাম, ওয়াকিটকি ও বিদেশি ছুরি উদ্ধার করা হয় বলে আইনপ্রয়োগকারী সংস্থাটি জানিয়েছিল। ওই বছরের নভেম্বরে জামিনে মুক্তি পান তিনি।

About

Popular Links