Friday, May 24, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

মঠবাড়িয়ায় বিদেশি অস্ত্র উদ্ধার, গ্রেপ্তার ১১

বুধবার তাদের আদালতে পাঠায় পুলিশ

আপডেট : ০৮ নভেম্বর ২০২৩, ০৯:৫৮ পিএম

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় অভিযান চালিয়ে ১১ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তারা সবাই পুলিশি কাজে বাধা দেওয়ার মামলায় অভিযুক্ত।

মঙ্গলবার (৭ নভেম্বর) রাতে উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করে থানা ও ডিবি পুলিশ। এ সময় উদ্ধার করা হয় দুটি বিদেশি পিস্তল, দুটি ম্যাগজিন, ১২ রাউন্ড গুলি এবং দুটি ধারালো অস্ত্র। 

মঠবাড়িয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. কামরুজ্জামান তালুকদার ঢাকা ট্রিবিউনকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা হলেন- উপজেলার চিত্রা পাতাকাটা গ্রামের সোহেল ওরফে ফল সোহেল (২৭), বহেরা তলা গ্রামের এনামুল হক রনি (২৮), দক্ষিণ মিঠাখালীর হাসান সরদার (২৯), চিত্রা পাতাকাটার আখতারুজ্জামান নিজাম (৩৪), মঠবাড়িয়া গ্রামের রিয়াজ (২১), বকসির ঘটিচোরা এলাকার বেল্লাল খান (৩৮), উত্তর মিঠাখালী গ্রামের লাবু বেপারী (২৪), মিরুখালী রোডের এক কিশোর (১৬), জানখালীর সাবেক ইউপি সদস্য মো. বেলায়েত আকন (৫৫), মো. রেদোয়ান গোলদার (৪২), মঠবাড়িয়া শহরের মিলন (৩২)।

পিরোজপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (মঠবাড়িয়া) সার্কেল মোহাম্মদ সাখাওয়াত হোসেন জানান, একটি মামলায় সোহেলকে গত ৬ নভেম্বর সন্ধ্যায়  মঠবাড়িয়া  থানা পুলিশ গ্রেপ্তার করে। এ সময় ৪০-৫০ জনের একটি কিশোর গ্যাং পুলিশের হাত থেকে তাকে ছিনিয়ে নেয়। 

তিনি আরও জানান, এ ঘটনায়  মঠবাড়িয়া থানার সেকেন্ড অফিসার আ. কুদ্দস বাদী হয়ে পুলিশি কাজে বাধা দেওয়ার অভিযোগে মামলা করেন। মঙ্গলবার রাতে মঠবাড়িয়ার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে কিশোরগ্যাংয়ের হোতা ফল সোহেলকে গ্রেপ্তার করে। তার দেওয়া তথ্য অনুযায়ী তুষখালী ইউনিয়নের জানখালী গ্রাম থেকে গ্রেপ্তার করা হয় রোদোয়ান গোলদারকে।  এরপর উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে বাকিদের ধরা হয়।

মঠবাড়িয়া থানার ওসি মো. কামরুজ্জামান তালুকদার বলেন, এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে মঠবাড়িয়া থানায় পৃথক তিনটি মামলা করেছে। অভিযুক্তদের বুধবার আদালতে পাঠানো হয়েছে। 

ওসি জানান, সোহেলের বিরুদ্ধে ডিবি ওসি হত্যাচেষ্টাসহ ১৮টি মামলা রয়েছে।

About

Popular Links