Sunday, May 26, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

আইজিপি: থার্টি ফার্স্ট নাইটে আতশবাজি-ফানুস নয়

বড়দিনে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য মাঠপর্যায়ের পুলিশ কর্মকর্তাদের নির্দেশ দিয়েছেন পুলিশ প্রধান

আপডেট : ১৮ ডিসেম্বর ২০২৩, ১১:৫২ এএম

খ্রিষ্টধর্মাবলম্বীদের প্রধান উৎসব বড়দিন ও খ্রিষ্টীয় বর্ষবরণের রাতে (থার্টি ফার্স্ট নাইট) পটকা, আতশবাজি পোড়ানো এবং ফানুস ওড়ানো থেকে সবাইকে বিরত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন পুলিশের মহাপরিদর্শক চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন। এছাড়াও বড়দিনে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য মাঠপর্যায়ের পুলিশ কর্মকর্তাদের নির্দেশ দিয়েছেন পুলিশ প্রধান।

রবিবার (১৮ ডিসেম্বর) পুলিশ সদর দপ্তরের হল অব প্রাইডে বড়দিন ও থার্টি ফার্স্ট নাইট উপলক্ষে নিরাপত্তা ও আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থাসংক্রান্ত সভায় আইজিপি এ নির্দেশনা দেন।

চার্চে সার্বক্ষণিক স্বেচ্ছাসেবক নিয়োগ ও গুরুত্বপূর্ণ স্থানে সিসিটিভি স্থাপনের জন্য সভায় উপস্থিত খ্রিস্টান ধর্মের নেতাদের প্রতি অনুরোধ জানিয়ে আইজিপি বলেন, “কেউ নাশকতার চেষ্টা করলে তাকে আটক করবেন। না পারলে চিনে রাখবেন। পুলিশ তাদের আটক করবে। প্রয়োজনে জাতীয় জরুরি সেবা নম্বর ৯৯৯–এ যোগাযোগ করবেন।”

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিভ্রান্তিকর পোস্ট, মন্তব্য বা ছবি দিয়ে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টের চেষ্টাকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে পুলিশের প্রতি নির্দেশনা দেন আইজিপি। তিনি কক্সবাজারসহ দেশের গুরুত্বপূর্ণ পর্যটন এলাকায় সার্বিক নিরাপত্তাব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ট্যুরিস্ট পুলিশকে বিশেষ নির্দেশনা দেন।

সভায় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত আইজি কামরুল আহসান, মনিরুল ইসলাম, এস এম রুহুল আমিন, আতিকুল ইসলাম, বনজ কুমার মজুমদার, ডিএমপি কমিশনার হাবিবুর রহমান, বাংলাদেশ খ্রিস্টান অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট নির্মল রোজারিও, যুগ্ম মহাসচিব জেমস সুব্রত হাজরা, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক থিওফিল রোজারিও , খ্রিস্টান অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশের সাধারণ সম্পাদক উইলিয়াম প্রলয় সমদ্দার। 

র‍্যাব মহাপরিচালক এম খুরশীদ হোসেন, সব মহানগরের পুলিশ কমিশনার, রেঞ্জ ডিআইজি ও জেলার পুলিশ সুপাররা সভায় ভার্চুয়ালি যুক্ত ছিলেন।

About

Popular Links