Friday, May 24, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

বিএনপির হাফিজ-আলতাফের ২১ মাসের কারাদণ্ড

গত ২৪ ডিসেম্বর রাষ্ট্র ও আসামিপক্ষের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষে রায় ঘোষণার দিন ধার্য করেন আদালত

আপডেট : ২৮ ডিসেম্বর ২০২৩, ০৪:০০ পিএম

এক যুগ আগে রাজধানীর গুলশান থানার একটি নাশকতার মামলায় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান, সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও বিমান বাহিনীর সাবেক প্রধান এয়ার ভাইস মার্শাল (অব.) আলতাফ হোসেন চৌধুরী ও মেজর (অব.) মো. হাফিজ উদ্দিন আহমেদকে পৃথক দুই ধারায় ২১ মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার (২৮ ডিসেম্বর) ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট রাজেশ চৌধুরীর আদালত এ রায় ঘোষণা করেন।

গত ২৪ ডিসেম্বর রাষ্ট্র ও আসামিপক্ষের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষে রায় ঘোষণার দিন ধার্য করেন আদালত।

মামলার এজাহার থেকে জানা যায়, ২০১১ সালের ৪ জুন গুলশান থানার মহাখালী ওয়ারলেস গেট পানির ট্যাংকির সামনে রাস্তার ওপর “অবৈধভাবে” সমাবেশ করেন বিএনপির নেতাকর্মীরা। পুলিশ তাদের বাধা দিতে গেলে আসামিরা আক্রমণ করেন। এছাড়াও তারা রাস্তায় চলাচলরত গাড়ি ভাঙচুর ও আগুন ধরিয়ে দেন।

ওই ঘটনায় গুলশান থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) শেখ সোহেল রানা চারজনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরও ৩০-৪০ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন। ২০১৪ সালের ২৯ এপ্রিল মামলা তদন্ত শেষে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন গুলশান থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) কামরুল হাসান তালুকদার। ২০২২ সালের ২৫ এপ্রিল আসামিদের বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করে বিচার শুরুর আদেশ দেন আদালত। বিচার চলাকালীন আদালত ১২ জন সাক্ষীর মধ্যে সাতজনের সাক্ষ্য গ্রহণ করেন আদালত।

গত ৪ অক্টোবর আলতাফ হোসেন চৌধুরীকে রাজধানীর উত্তরা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারের পর র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) সদর দপ্তরের আইন ও গণমাধ্যম শাখা থেকে জানানো হয়, প্রধান বিচারপতির বাসভবনে হামলা, নাশকতা ও সহিংসতা মামলার আসামি হিসেবে আলতাফ হোসেন চৌধুরীকে আটক করা হয়েছে।

গত ৫ নভেম্বর আলতাফ হোসেন চৌধুরীর জামিনের আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন ঢাকার সিএমএম আদালত। এরপর থেকে তিনি কারাগারে আটক রয়েছেন। আলতাফ হোসেন চৌধুরীর বিরুদ্ধে মোট চারটি মামলা রয়েছে।

About

Popular Links