Monday, May 27, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

চট্টগ্রামে আংশিক গ্যাস সরবরাহ শুরু

  • এলএনজি টার্মিনাল আংশিক চালু হয়েছে
  • যান্ত্রিক ত্রুটি দেখা দিলে টার্মিনালটি বন্ধ করে দেওয়া হয়
আপডেট : ২০ জানুয়ারি ২০২৪, ০১:২৬ পিএম

কক্সবাজারের মহেশখালীতে বঙ্গোপসাগরে ভাসমান এলএনজি টার্মিনাল আংশিক চালু হয়েছে। ফলে চট্টগ্রামে আংশিক গ্যাস সরবরাহ শুরু হয়েছে।

পেট্রোবাংলার এক কর্মকর্তা জানান, শুক্রবার (১৯ জানুয়ারি) রাত ১০টা ১২ মিনিটে টার্মিনালটি আংশিকভাবে চালু হয়।

এলএনজি টার্মিনালে যান্ত্রিক ত্রুটি দেখা দিলে টার্মিনালটি বন্ধ করে দেওয়া হয়। এতে ৫০০ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস সরবরাহ বন্ধ হয়ে যায়।

এতে চট্টগ্রামের গ্যাস সরবরাহ বন্ধ হয়ে যায়। এদিকে দেশের বিভিন্ন স্থানে গ্যাস ইস্যুতে উত্তেজনা দেখা দেয়। এলএনজি টার্মিনালের কিছু অংশ চালু হলেও পূর্ণ ক্ষমতায় চালু হতে সময় লাগবে বলে জানা গেছে।

পেট্রোবাংলা সূত্র জানায়, মহেশখালীতে দুটি ভাসমান এলএনজি টার্মিনাল থেকে আমদানি করা এলএনজি রূপান্তর (রিগ্যাসিফিকেশন) করে পাইপলাইনে সরবরাহ করা হয়।

টার্মিনালের মধ্যে একটি যুক্তরাষ্ট্রের কোম্পানি এক্সিলারেট এনার্জি। অন্যটি সামিট এলএনজি টার্মিনাল। এই দুটি টার্মিনাল থেকে প্রতিদিন ৮৫০ মিলিয়ন ঘনফুট এলএনজি সরবরাহ করা হচ্ছিল। পাঁচ বছর পরপর এগুলো রক্ষণাবেক্ষণের (সংস্কার) প্রয়োজন হয়।

গত ১ নভেম্বর এক্সিলারেট এনার্জির টার্মিনালটির রক্ষণাবেক্ষণের কাজ শুরু করা হয়। এ সময় টার্মিনালটি গভীর সমুদ্রে নিয়ে যাওয়া হয়।

রক্ষণাবেক্ষণের কাজ শেষে বৃহস্পতিবার টার্মিনালটি কয়েকবার চালু করার চেষ্টা করা হলেও গ্যাস সরবরাহ করা যায়নি। আবার বন্ধ হয়ে যায়। 

অন্যদিকে সামিট এলএনজি টার্মিনালটিও গত বৃহস্পতিবার রক্ষণাবেক্ষণের জন্য যাওয়ার কথা ছিল। এ কারণে টার্মিনালটিও খালি করা হয়। তাই গ্যাস সরবরাহও বন্ধ ছিল। তবে শুক্রবার সকাল পর্যন্ত এক্সিলারেটের টার্মিনাল চালু করতে না পারায় সমস্যা দেখা দেয়।

About

Popular Links