Friday, May 24, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

সুবর্ণচরে সিঁধ কেটে ঘরে ঢুকে মা-মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ

  • ওই নারী তিন সন্তানের জননী
  • শিশুটি পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী
আপডেট : ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০৪:১৯ পিএম

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোটের রাতে নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলায় এক গৃহবধূকে (৪০) গণধর্ষণের দায়ে ১০ জনকে মৃত্যুদণ্ড এবং ছয়জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

সোমবার (৫ ফেব্রুয়ারি) আলোচিত এ মামলার রায় ঘোষণার দিন রাতেই একই উপজেলায় ফের গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে।

উপজেলার চরওয়াপদা ইউনিয়নের একটি বাড়িতে সিঁধ কেটে এক গৃহবধূ ও তার মেয়েকে গধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ সময় ঘর থেকে স্বর্ণালংকার ও নগদ টাকা লুটের ঘটনাও ঘটেছে বলে অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগীরা।

ধর্ষণের ভুক্তভোগী নারী তিন সন্তানের জননী ও নির্যাতিত শিশুটি স্থানীয় একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রের বরাত দিয়ে এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে অনলাইন সংবাদমাধ্যম বাংলা ট্রিবিউন।

স্থানীয়রা জানান, কয়েক মাস আগে হাতিয়া থেকে এসে চরওয়াপদা ইউনিয়নে নতুন বাড়ি করেন এক ব্যক্তি। ওই বাড়িতে স্ত্রী ও তিন সন্তানসহ বসবাস করেন তিনি। পেশায় দিনমজুর ওই ব্যক্তি বিভিন্ন জায়গায় কাজ করতে যান। তাই মাঝেমধ্যেই ২-৩ দিন পর্যন্ত বাড়ির বাইরে থাকেন তিনি।

গত দুই দিন আগে কাজের সন্ধানে তিনি বাড়ির বাইরে যান। তাই বাড়িতে তিন মেয়েকে নিয়ে ছিলেন ওই গৃহবধূ। সোমবার রাত ২টার দিকে ঘরের সিঁধ কেটে ভেতরে প্রবেশ করে একজন। এরপর সে ঘরে ঢুকে ভেতর থেকে দরজা খুলে দিলে আরও দুইজন প্রবেশ করে। এরপর তাদের মধ্যে দুইজন ওই গৃহবধূকে ও তার এক মেয়েকে ধর্ষণ করে। এরপর গৃহবধূর হাত-পা ও মুখ বেঁধে ঘরে থাকা স্বর্ণ ও নগদ টাকা লুট করে নিয়ে যায়।

দুষ্কৃতকারীরা চলে যাওয়ার পর শিশুদের চিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে গৃহবধূর বাঁধন খুলে দেয় এবং বিষয়টি চরজব্বার থানায় জানায়।

এ বিষয়ে চরজব্বার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, খবর পেয়ে রাতে পুলিশ ঘটনাস্থলে পোঁছায়। মঙ্গলবার ভোর পর্যন্ত পুলিশ ওই স্থানে ছিল। সকালে ভুক্তভোগীদের থানায় আনা হয়েছে।

তিনি বলেন, “তাদের চিকিৎসা ও পরীক্ষার জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হবে। এ ঘটনায় একটি মামলা করা হবে এবং আসামিদের শনাক্ত করে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।”

About

Popular Links