Wednesday, May 22, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

সুযোগ পেয়েও অর্থাভাবে শামীমের মেরিন অ্যাকাডেমি ভর্তিতে অনিশ্চয়তা

‘দরিদ্র পরিবারে জন্ম, করার কিছু নেই। ভর্তি হতে পারব কি-না, জানি না’

আপডেট : ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১০:০৫ পিএম

সুযোগ পেয়েও মেরিন ক্যাডেট অ্যাকাডেমিতে পড়াশোনায় অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে সাতক্ষীরার ছেলে শামীম কবির নিরবের। এত বড় সুযোগ পেয়েও খুশি হতে পারছেন না তার চা বিক্রেতা বাবা। 

উচ্চশিক্ষার জন্য মেরিন অ্যাকাডেমি অনেকের কাছে রীতিমতো স্বপ্ন। সেই স্বপ্ন সত্যি হতে শামীমের সামনে বাধা অর্থাভাব। ভর্তির জন্য প্রয়োজন প্রায় ৫০ হাজার টাকা। এছাড়া মেডিকেল পরীক্ষাসহ বিভিন্ন খরচ মিলিয়ে তার এখন প্রায় এক লাখ টাকার প্রয়োজন।

কিন্তু দরিদ্র বাবার পক্ষে এককালীন এতগুলো টাকার যোগান দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। ছেলের উচ্চশিক্ষা নিয়ে চরম অনিশ্চয়তায় রয়েছে পরিবারটি। ২০২৩-২৪ সালে মেরিন অ্যাকাডেমি মেধাতালিকায় ৩৫তম স্থান অধিকারী শামীম কবির নিরব বাংলাদেশ মেরিন একাডেমি চট্টগ্রামে ভর্তির সুযোগ পেয়েছে।

তার বাবা ছিদ্দিক মোড়ল সাতক্ষীরা শিশু হাসপাতালের সামনে চা বিক্রি করেন। মেধাবী শামীম ২০২০ সালে সাতক্ষীরা পুলিশ লাইন স্কুল থেকে মাধ্যমিকে জিপিএ-৫ এবং ২০২২ সালে যশোর ক্যান্টনমেন্ট কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিকে জিপিএ-৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হন।

শামীমের কথায়, “গত ২৭ জানুয়ারি মেরিন ক্যাডেট ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করি। এতে মেধাতালিকায় ৩৫তম স্থান অধিকার করেছি। ভর্তি হতে ৫০ হাজার টাকা লাগবে। এছাড়া মেডিকেল পরীক্ষায় ১০ হাজার টাকা, অন্যান্য খরচ দিয়ে প্রায় এক লাখ টাকা মতো লাগবে বলে জেনেছি। আমার বাবা একজন চায়ের দোকানি।”

“দরিদ্র পরিবারে জন্ম, করার কিছু নেই। ভর্তি হতে পারব কি-না, জানি না।”

শামীমের বাবা ছিদ্দিক মোড়ল বলেন, “আমার তিন ছেলের মধ্যে শামীম বড়। ছেলের সাফল্যে আমরা অনেক খুশি। ছোট একটা চায়ের দোকানে পাঁচজনের সংসার চলে। যশোর ক্যান্টনমেন্ট কলেজ পড়াতে গিয়ে ছেলের পেছনে অনেক টাকা খরচ হয়েছে। অনেক কষ্টে প্রতি মাসে সেই টাকা যুগিয়েছি। বতর্মান বাজারের সকল জিনিসের যে দাম তাতে আমাদের সংসার ঠিকমতো চলে না। ভর্তির এত টাকা পাব কোথায়? কোনো দানশীল ব্যক্তি যদি তার পড়াশোনার ভার বহন করে, তবে কৃতজ্ঞ থাকব। বৃত্তির ব্যবস্থা হলে আমার ছেলে পড়ালেখা চালিয়ে যেতে পারবে।”

মেধাবী এই শিক্ষার্থীর জন্য সহায়তা করতে চাইলে ০১৭২৭০১৩৯৮৪ নম্বরে যোগাযোগের অনুরোধ জানিয়েছে শামীমের পরিবার। বাবার সঙ্গে দোকানে কাজ করেও এসএসসিতে গোল্ডেন “এ প্লাস” পেয়েছিলেন শামীম। নিয়ম অনুযায়ী আগামী ২৭ ফেব্রুয়ারি তারিখের মধ্যে ভর্তি হতে না পারলে তার আসনটি শুন্য ঘোষণা করবে মেরিন একাডেমি।

About

Popular Links