Saturday, May 18, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

স্বর্ণের বার দেওয়ার কথা বলে গহনা-টাকা হাতিয়ে পালাচ্ছিলেন তারা

আটকরা প্রতারণার মাধ্যমে লোকজনের কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নেন বলে স্বীকার করেছেন

আপডেট : ১৯ মার্চ ২০২৪, ০৬:২৫ পিএম

বগুড়ার শেরপুরে স্বর্ণের বার দেওয়ার কথা বলে এক বৃদ্ধার গহনা ও টাকা হাতিয়ে নিয়ে পালানোর সময় দুজনকে আটক করা হয়েছে।

সোমবার (১৮ মার্চ) সন্ধ্যায় বগুড়ার শেরপুর উপজেলার বিশালপুর ইউনিয়নের হঠাৎপাড়া সড়ক এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর স্বজন বাদী হয়ে ওই দুজনের বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগে শেরপুর থানায় মামলা করেছেন।  

আটকরা হলেন- গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জের উলিপুর গ্রামের সেলিম মিয়া (৩০) ও সুন্দরগঞ্জ উপজেলার উত্তর রাজিবপুর গ্রামের মমিনুল ইসলাম (৩৫)।

ভুক্তভোগী বাছা বেওয়া (৬০) বিশালপুর ইউনিয়নের বাসিন্দা।

ওই নারীর বরাতে পুলিশ জানায়, বিকেলের দিকে উপজেলার রানীরহাটের রূপালী বাজার থেকে গোয়ালবিশ্ব গ্রামে যেতে সিএনজিচালিত অটোরিকশা গাড়িতে ওঠেন। গাড়িটি চালাচ্ছিলেন সেলিম মিয়া আর যাত্রী ছিলেন মমিনুল ইসলাম। গাড়ি চলার সময় ওই নারীকে একটি স্বর্ণের বার দেখিয়ে তারা জানান, মাটি খুঁড়ে এটি পেয়েছেন তারা। এটির দাম তিন-চার লাখ টাকা। তবে বার প্রকাশ্যে বিক্রি করতে ভয় পাচ্ছেন। একপর্যায়ে তারা বৃদ্ধার গলার স্বর্ণের চেইন ও কিছু টাকার বিনিময়ে সেটি তাকে দিয়ে দেবেন বলে প্রস্তাব দেন। বৃদ্ধা তার চেইন ও পাঁচ হাজার টাকা তাদের দেন। তবে স্বর্ণের বার না দিয়ে তারা বিশালপুর ইউনিয়নের হঠাৎপাড়া এলাকায় ওই বৃদ্ধাকে অটোরিকশা থেকে নামিয়ে দেন। এতে তিনি চিৎকার শুরু করলে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসেন এবং দুজনকে আটক করেন। তাদের পুলিশ সোপর্দ করা হয়।

শেরপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সাঈফ আহমেদ জানান, তাদের কাছ থেকে একটি নকল স্বর্ণের বার, বৃদ্ধার  স্বর্ণের চেইন ও টাকা উদ্ধার করা হয়েছে। আটকরা প্রতারণার মাধ্যমে লোকজনের কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নেন বলে স্বীকার করেছেন।

আটক সেলিম মিয়ার নামে নওগাঁর বদলগাছি থানায় প্রতারণার অভিযোগে দুটি মামলা রয়েছে বলেও জানায় পুলিশ।

About

Popular Links