Sunday, May 19, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

পুলিশ: বিমান ছিনতাইকারীর হাতে ছিল খেলনা পিস্তল

এক টেলিভিশন অনুষ্ঠানে যুক্ত হয়ে বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলীও এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন

আপডেট : ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১১:৪০ এএম

গতকালের বহুল আলোচিত বিমান ছিনতাইয়ের ঘটনায় নিহত যুবক বিমান ছিনতাই এর কাজে যে অস্ত্র ব্যবহার করেছেন তা খেলনা পিস্তল ছিল বলে জানিয়েছে পুলিশ।

রবিবার রাতে ছিনতাই কাণ্ডের অবসানের পর চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশ (সিএমপি) কমিশনার মোহাম্মদ মাহবুবার রহমান একথা জানান বলে বিডি নিউজের একটি খবরে বলা হয়েছে।

তিনি বলেন, “তার কাছে যে অস্ত্রটি পাওয়া গেছে এটা ফেইক, খেলনা পিস্তল।”

পরবর্তীতে এক টেলিভিশন অনুষ্ঠানে যুক্ত হয়ে বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলীও এই তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, "ওই পিস্তলটি ছিল খেলনা"।

বিমান প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, "এক ‘চিত্রনায়িকার প্রেমে ব্যর্থ হয়ে' ওই যুবক এই কাণ্ড ঘটিয়েছেন"।

পুলিশ কর্মকর্তা মাহবুবার বলেন, “পুলিশের এখন তদন্ত শুরু হল। তার পরিচয় এখনও নিশ্চিত করে কিছু পাওয়া যায়নি। তবে এ নিয়ে ইতোমধ্যে কাজ শুরু হয়ে গেছে। আশা করা হচ্ছে, খুব শিগগিরই পাওয়া যাবে।”

বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক) চেয়ারম্যান এম নাঈম হাসান এপ্রসঙ্গে বলেন, “সো ফার আমি জানি, তার কাছে একটা অস্ত্র ছিল। ঐ ব্যক্তি বলেছিল যে তার গায়ে বোম্ব জড়ানো আছে। ওটা কী ছিল, সেটা তদন্তে বেরিয়ে আসবে।”

সিএমপি কমিশনার মাহবুবার বলেন, “পুলিশের এখন তদন্ত শুরু হল। তার পরিচয় এখনও নিশ্চিত করে কিছু পাওয়া যায়নি। তবে এ নিয়ে ইতোমধ্যে কাজ শুরু হয়ে গেছে। আশা করা হচ্ছে, খুব শিগগিরই পাওয়া যাবে।”

উল্লেখ্য, গতকাল বিকাল ৫.৪০ মিনিটে চট্টগ্রামের শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইট (বিজি-১৪৭) জরুরি অবতরণ করে। ওই উড়োজাহাজে ১৩৪ জন যাত্রী ও ১৪ জন ক্রু ছিলেন। বিমানটি চট্টগ্রাম বিমানবন্দরে অবতরণের পর তাদের সবাই অক্ষত অবস্থায় নেমে এসেছেন। কেবিন ক্রুদের জিম্মি করা হয়েছিল। তবে ছিনতাইকারী কোনো যাত্রীর কোনো ক্ষতি করেননি। 

এদিকে, বিমান ছিনতাইয়ের এই ঘটনা তদন্তে ইতোমধ্যে পাঁচ সদস্যের একটি কমিটি করেছে বেসামরিক বিমান চলাচল ও পর্যটন মন্ত্রণালয়।

About

Popular Links