Saturday, May 25, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

দুদকের চার্জশিট: পিডিবির আজিমের অবৈধ সম্পদ অর্জনের প্রমাণ মিলেছে

এ সংক্রান্ত মামলার প্রধান আসামি করা হয় তার স্ত্রী নবতারা নুপুরকে

আপডেট : ০৬ মে ২০২৪, ১১:৫৫ পিএম

জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগে বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের (পিডিবি) উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা এস.এম.এ আজিমকে দোষী সাব্যস্ত করে চার্জশিট দিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন। তিনি সংস্থাটির পূর্ত কর্ম বিভাগের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী (ভারপ্রাপ্ত) হিসেবে কর্মরত।

আজিম ও তার স্ত্রী নবতারা নুপুরের বিরুদ্ধে ৯৪ লাখ ২৮ হাজার ১৭২ টাকার তথ্য গোপন এবং ৩ কোটি ৫৭ লাখ ৩৮ হাজার ১৫৫ টাকার জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের প্রমাণ মিলেছে বলে দুদকের চার্জশিটে উল্লেখ করা হয়েছে।

কমিশনের সচিব খোরশেদা ইয়াসমীন চার্জশিটের বিষয়টি সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেছেন।

বিষয়টি এরই মধ্যে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিব, বিদ্যুৎ বিভাগের সিনিয়র সচিব, বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যানকে লিখিতভাবে জানানো হয়েছে।

এ বিষয়ে এস.এম.এ আজিমের বক্তব্য জানতে মোবাইল ফোনে বারবার কল করা হলেও তিনি সাড়া দেননি। এসএমএস পাঠানো হলেও তিনি উত্তর দেননি।

এর আগে, ২০২১ সালের ১৩ জুন প্রায় চার কোটি টাকার জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগে আজিম ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে মামলা করে দুদক।

মামলায় প্রধান আসামি করা হয় আজিমের স্ত্রী নবতারা নুপুরকে (৫৬)। দ্বিতীয় আসামি করা হয় আজিমকে। আজিম একসময় চট্টগ্রাম পিডিবির তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী ছিলেন।

এজাহারে বলা হয়, নবতারা নুপুরের নামে প্রায় চার কোটি টাকার স্থাবর ও পৌনে এক কোটি টাকার অস্থাবর সম্পদের প্রমাণ মিলেছে। এর মধ্যে নবতারার নামে এক কোটি ছয় লাখ টাকার গ্রহণযোগ্য আয়ের তথ্য পাওয়া যায়। এ সময় তিনি ব্যয় করেন ১৬ লাখ টাকা। ব্যয় বাদে তার নিট সঞ্চয় প্রায় ৯০ লাখ টাকা। ফলে নবতারার নামে ৩ কোটি ৮৪ লাখ ৭৪ হাজার ৬০৭ টাকা মূল্যের জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের সাক্ষ্য-প্রমাণ পাওয়া যায়, যা তার স্বামী এসএমএ আজিম চাকরিকালীন দুর্নীতির মাধ্যমে অবৈধভাবে উপার্জন করে স্ত্রীর নামে সম্পদ গড়েন।

About

Popular Links