Saturday, June 15, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

সিলেটে আরও একটি কূপে গ্যাসের সন্ধান

কৈলাশটিলা গ্যাস ক্ষেত্রের ৮ নম্বর এই কূপে এখন দৈনিক ২১ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস প্রবাহ হচ্ছে

আপডেট : ২৪ মে ২০২৪, ১০:৫১ পিএম

খননকাজ শেষে সিলেটের কৈলাশটিলা গ্যাস ক্ষেত্রের ৮ নম্বর কূপে গ্যাসের সন্ধান পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছে সিলেট গ্যাস ফিল্ডস লিমিটেড (এসজিএফএল)। এ নিয়ে গত সাত মাসে সিলেটের চারটি কূপে গ্যাসের সন্ধান মিলল।

এসজিএফএলের তথ্য অনুযায়ী, প্রাকৃতিক সম্পদের আধার হিসেবে পরিচিত সিলেটে গত বছর থেকেই কূপ অনুসন্ধান ও খননের কাজ চলমান রেখেছে সিলেট গ্যাসফিল্ডস লিমিটেড কর্তৃপক্ষ।

এরই অংশ হিসেবে ২০২৩ সালের প্রথম দিকে কৈলাশটিলা ৮ নম্বর কূপে খননকাজ শুরু হয়। প্রায় ১৫০ কোটি টাকা ব্যয়ে এই কূপ খনন করা হয়।

সিলেট গ্যাসফিল্ডস লিমিটেডের উৎপাদনে থাকা কূপগুলো থেকে এখন প্রতিদিন জাতীয় গ্রিডে যুক্ত হচ্ছে প্রায় ১০০ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস। এবছরের মধ্যে আরও কয়েকটি প্রকল্পের কাজ শেষ করে এই উৎপাদনকে ১৫০ মিলিয়ন ঘনফুটে নিয়ে যেতে চায় কর্তৃপক্ষ।

সরকারের বেঁধে দেওয়া সময় অনুযায়ী, ২০২৫ সালের মধ্যে সব কাজ শেষ করতে পারলে শুধু এই কোম্পানি থেকে প্রতিদিন জাতীয় গ্রিডে ২৫০ মিলিয়ন গ্যাস যুক্ত করা সম্ভব বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

এসজিএফএলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মিজানুর রহমান জানান, “গত বছরের জানুয়ারি থেকে কৈলাশটিলার ৮ নম্বর কূপে খননকাজ শুরু করা হয়। পরীক্ষামূলকভাবে কূপের ৩,৪৪০ থেকে ৩,৪৫৫ মিটার গভীরতায় নতুন গ্যাসের স্তর পাওয়া গেছে।”

তিনি বলেন, “এখন দৈনিক ২১ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস প্রবাহ হচ্ছে। গ্যাসের প্রেশার আছে ৩,৩৭০ পিএসআই। আর আগামী ৩ মাসের মধ্যে এখান থেকে প্রাপ্ত গ্যাস জাতীয় গ্রিডে যুক্ত হবে।”

এর আগে, গত ২৭ জানুয়ারি সিলেট গ্যাস ফিল্ডসের আওতাধীন রশিদপুরের ২ নম্বর কূপে গ্যাসের নতুন স্তরের সন্ধান মেলে;, যার পরিমাণ প্রায় ১৫৭ বিলিয়ন ঘনফুট।

About

Popular Links