Saturday, June 15, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

সলঙ্গা গণহত্যার স্মৃতিস্তম্ভ নির্মাণের নির্দেশ

২৭ জানুয়ারি সলঙ্গা গণহত্যাকে জাতীয় দিবস হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না- তা জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট

আপডেট : ০২ জুন ২০২৪, ০৬:৩৩ পিএম

বৃটিশ শাসনামলে ১৯২২ সালের ২৭ জানুয়ারি সিরাজগঞ্জের সলঙ্গায় সংঘটিত গণহত্যার স্থানে স্মৃতিস্তম্ভ নির্মাণের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

রবিবার (২ জুন) বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলাম ও বিচারপতি এসএম মাসুদ হোসেন দোলনের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট ডিভিশন বেঞ্চ রুলসহ এ আদেশ দেন।

রুলে ২৭ জানুয়ারি সলঙ্গা গণহত্যাকে জাতীয় দিবস হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না- তা জানতে চাওয়া হয়েছে।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মো. আসাদ উদ্দিন। আর রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল তুষার কান্তি রায়।

অ্যাডভোকেট মো. আসাদ উদ্দিন আদালতের আদেশের বিষয়টি সাংবাদিকদের জানান। তিনি জানান, বিদেশি পণ্য বর্জন ও স্বদেশি পণ্য ব্যবহার করার আন্দোলনের প্রেক্ষাপটে ১৯২২ সালের ২৭ জানুয়ারি সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জের সলঙ্গা হাটে গণহত্যা সংঘটিত হয়। যেখানে মাওলানা আবদুর রশীদ তর্কবাগীশের নেতৃত্বে সলঙ্গা এলাকায় আন্দোলনরত জনতার ওপর নির্বিচারে গুলিবর্ষণ করে ব্রিটিশ পুলিশ। এতে সরকারি হিসেবে ৪,০০০ এবং স্থানীয়দের মতে প্রায় ১০,০০০ মানুষ হতাহত হন।

সলঙ্গা গণহত্যাকে জাতীয় দিবস ঘোষণা চেয়ে সুপ্রিম কোর্টের ১১ জন আইনজীবী- যাদের বাড়ি সিরাজগঞ্জে তারা হাইকোর্টে রিটটি দায়ের করেন।

রবিবার শুনানি নিয়ে সংশ্লিষ্টদের প্রতি রুল জারি করেন আদালত। রুলে ২৭ জানুয়ারি সলঙ্গা গণহত্যাকে জাতীয় দিবস হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না- তা জানতে চাওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে এই গণহত্যা সংঘটনের স্থানে একটি স্মৃতিস্তম্ভ নির্মাণের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

About

Popular Links