Saturday, June 15, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

জলাবদ্ধ ওসমানী মেডিকেল

সোমবার সকাল ৯টায় সিলেট পয়েন্টে সুরমা নদীর পানি বিপৎসীমার ১৩ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে

আপডেট : ০৩ জুন ২০২৪, ০২:২১ পিএম

মেঘালয় পাহাড়ের ঢল ও বৃষ্টিতে সুরমা নদীর পানি উপচে সিলেট নগরীর বিভিন্ন এলাকায় পানি প্রবেশ করতে শুরু করেছে। বাদ যায়নি সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালও। হাসপাতালটির বিভিন্ন ভবনের নিচতলা ইতোমধ্যে তলিয়ে গেছে। ফলে ব্যাহত হচ্ছে চিকিৎসাসেবা।

সোমবার (৩ জুন) সিলেট আবহাওয়া অফিসের সহকারী আবহাওয়াবিদ শাহ সজীব হোসাইন ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, “সোমবার সকাল ৬টা পর্যন্ত পূর্ববর্তী ২৪ ঘণ্টায় সিলেটে ২২৬.৬ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। সকাল ৬টা থেকে ৯টা পর্যন্ত ২৮ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়েছে।”

এদিকে পানি উন্নয়ন বোর্ড জানিয়েছে, সোমবার সকাল ৯টায় সিলেট পয়েন্টে সুরমা নদীর পানি বিপৎসীমার ১৩ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে।

ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডা. মাহবুবুর রহমান ভূঁইয়া ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, “ভোররাত থেকে হাসপাতালের ফটকসহ আশপাশের এলাকায় জলাবদ্ধতা দেখা দিয়েছে। হাসপাতাল ভবনের নিচতলার প্রায় প্রতিটি কক্ষ প্লাবিত হয়েছে। দুর্ভোগে পড়েছেন রোগী, চিকিৎসক, হাসপাতালের কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা।”

জলাবদ্ধতার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি আরও বলেন, “গত বছর বন্যার সময় পানি ঢুকেছিল। এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্টদের বারবার জানানো হলেও কোনো ধরনের ব্যবস্থা না নেওয়া হয়নি। বৃষ্টি হলে এই অবস্থা হয়।”

মেডিকেল সূত্র বলছে, হাসপাতালের উত্তরপাশ ঘেঁষে প্রবাহিত ছড়ার আশপাশে নির্মিত হয়েছে বিভিন্ন ভবন ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। ফলে ছড়া দিয়ে পানিপ্রবাহ বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। আবার অনেক বাসিন্দা পানির প্রবাহ ওসমানী মেডিকেলের একমাত্র ড্রেনের সঙ্গে সংযুক্ত করেছেন। ফলে ড্রেন উপচে বৃষ্টির পানি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বৈদ্যুতিক উপকেন্দ্রে প্রবেশ করে।

রোগীর স্বজনরা জানিয়েছেন, প্যাথলজি বিভাগ, ২৬, ২৭ ও ৩১ নম্বর ওয়ার্ডে হাঁটু সমান পানি রয়েছে। বিভিন্ন কক্ষে পানি প্রবেশ করার ফলে অনেক মালামাল ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। নিচতলার মেঝেতে যারা চিকিৎসা নিচ্ছিলেন, তড়িঘড়ি করে তাদেরকে একজনের বিছানায় দুইজন রোগীকে জায়গা দেওয়া হয়। ওয়ার্ডে ময়লা-আবর্জনাযুক্ত পানি প্রবেশ করার ফলে চিকিৎসা নিতে এসে উল্টো বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে।

About

Popular Links