Thursday, May 30, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

কণ্ঠশিল্পী শাহনাজ রহমতুল্লাহ’র দাফন সম্পন্ন

কিংবদন্তী সঙ্গীত শিল্পী শাহনাজ রহমত উল্লাহ’র মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

আপডেট : ২৪ মার্চ ২০১৯, ০৪:২৩ পিএম


কণ্ঠশিল্পী শাহনাজ রহমতুল্লাহ’র দাফন সম্পন্ন হয়েছে। রবিবার (২৪ মার্চ) বাদ জোহর বেলা ২টা ৪০ মিনিটের দিকে রাজধানীর বনানীস্থ সম্মিলিত সামরিক বাহিনীর কবরস্থানে দাফন করা হয়। 

এর আগে বাদ জোহর একমাত্র জানাজা হলো বারিধারার ৯ নম্বর রোডের পার্ক মসজিদে। মেয়ে নাহিদ রহমত উল্লাহ ও ছেলে সায়েফ রহমত উল্লাহ’র অনুপস্থিতিতেই দাফন করা হয় তাকে।

শনিবার (২৩ মার্চ) দিবাগত রাত ১টায় হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান তিনি। কিংবদন্তী সঙ্গীত শিল্পী শাহনাজ রহমত উল্লাহ’র মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। 

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রয়াত এ শিল্পীর আত্মার মাগফিরাত কামনা করেছেন এবং তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন।

১৯৫২ সালের ২ জানুয়ারি একুশে পদকজয়ী শাহনাজ রহমতুল্লাহর জন্ম। ১৯৬৩ সালে চলচ্চিত্রের তার গানের যাত্রা শুরু হলেও হাতেখড়ি ছোটবেলায় মায়ের হাত ধরেই। মাত্র ১১ বছর বয়সেই তিনি রেডিওতে অনুষ্ঠান করেন। 

শাহনাজ রহমতুল্লাহ’র মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে মিডিয়াজুড়ে। এ প্রসঙ্গে কণ্ঠশিল্পী রুনা লায়লা বলেন, “কিংবদন্তি মানে আকাশের সবচেয়ে উজ্জ্বল তারা। আমাদের আকাশ থেকে আরও একটি তারা খসে গেল। আমি জানি না, আর কত সেরা শিল্পীকে আমাদের হারাতে হবে। আল্লাহ তার আত্মাকে শান্তিতে রাখুক।” 

২০১৪ সালে সংগীত শিল্পী হিসাবে পঞ্চাশ বছর পূর্ণ করেন এ শিল্পী।দীর্ঘ পঞ্চাশ বছরের ক্যারিয়ারে  ‘যে ছিল দৃষ্টির সীমানায়’,‘এক নদী রক্ত পেরিয়ে’, ‘জয় বাংলা বাংলার জয়’, ‘একবার যেতে দে না আমার ছোট্ট সোনার গাঁয়’, ‘একতারা তুই দেশের কথা বলরে এবার বল’, ‘প্রথম বাংলাদেশ আমার শেষ বাংলাদেশ’সহ অসংখ্য জনপ্রিয় ও কালজয়ী গান রয়েছে তাঁর।

তার বড় ভাই সুরকার আনোয়ার পারভেজ ও ছোট ভাই প্রয়াত চিত্রনায়ক জাফর ইকবাল।

About

Popular Links