Monday, May 27, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে গরম পানি দিয়ে ঝলসে দেয়ার অভিযোগ

গামছা ময়লা থাকার অজুহাতে তাকে গরম পানিতে ঝলসে দেয়া হয়

আপডেট : ০৯ এপ্রিল ২০১৯, ১১:০৫ এএম

মানিকগঞ্জে গরম পানি দিয়ে অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীর শরীর ঝলসে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে ঐ নারীর স্বামীর বিরুদ্ধে। বর্তমানে মানিকগঞ্জ ২৫০ শয্যা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ঐ নারী।

এ ব্যাপারে সোমবার গৃহবধূর বাবা বাদী হয়ে মানিকগঞ্জ সদর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন।

ভুক্তভোগীর বাবা বিশা খাঁ জানান, এক বছর আগে সদর উপজেলা বেউথা গ্রামে আব্দুল বাতেনের ছেলে সুজন মিয়ার (২৩) সাথে তার মেয়ের বিয়ে হয়। পেশায় রাজমিস্ত্রি সুজন বিয়ের পর থেকে তার মেয়েকে বিভিন্ন অজুহাতে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করে আসছেন। বর্তমানে তার মেয়ে সাড়ে চার মাসের অন্তঃসত্তা। রবিবার দুপুরে সুজন গোসল করার জন্য গরম পানি করতে বলেন তার মেয়েকে। পরে গোসলের জন্য গামছা চায়। তার মেয়ে গামছা নিয়ে গেলে সুজন গামছা ময়লা থাকার অজুহাতে তাকে মারধর শুরু করে। এক পর্যায়ে গোসলের গরম পানি লতার শরীরে ঢেলে দেয়। এতে তার মেয়ের পিঠ ও দুই হাত ঝলসে যায়।

মানিকগঞ্জ ২৫০ শয্যা হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক (আরএমও) লুৎফর রহমান জানান, "গরম পানিতে ওই গৃহবধূর ৩০ ভাগ শরীর ঝলসে গেছে। বর্তমানে শংকামুক্ত থাকলেও এ ধরনের রোগীকে ৭২ ঘণ্টা অবজারভেশনে রাখা হয়েছে"।

মানিকগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রকিবুজ্জামান বলেন, "শরীরে গরম পানি ঢেলে দেয়ার অভিযোগে ভুক্তভোগীর বাবা একটি অভিযোগ দিয়েছেন। অভিযোগ পাওয়ার পরপরই হাসপাতালে ও ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। আসামি সুজন মিয়াকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে"।

About

Popular Links