• বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ১৪, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৩৮ রাত

জেমকন সাহিত্য পুরস্কার পেলেন অভিষেক ও রফিকুজ্জামান

  • প্রকাশিত ০৭:৩৬ রাত নভেম্বর ৭, ২০১৯
জেমকন
পুরষ্কারপ্রাপ্তদের সঙ্গে জেমকন সাহিত্য পুরষ্কারের আয়োজক ও বিচারকরা। ছবি সৈয়দ জাকির হোসেন/ঢাকা ট্রিবিউন

ঢাকা লিট ফেস্ট ২০১৯  এর প্রথম দিনে বাংলা একাডেমির আবদুল করিম সাহিত্য বিশারদ মিলনায়তনে এই পুরষ্কার প্রদান করা হয়

জেমকন তরুণ কথাসাহিত্য পুরস্কার ও তরুণ কবিতা পুরস্কার ২০১৯ পেয়েছেন যথাক্রমে লেখক অভিষেক সরকার ও কবি রফিকুজ্জামান রণি। 

অভিষেক সরকার তার ছোটগল্প ‘নিষিদ্ধ’ এবং রফিকুজ্জামান রণি ‘ধোঁয়াশার তামাটে রঙ’ কবিতার পাণ্ডুলিপির জন্য এই পুরস্কার লাভ করেন।

তাদের প্রত্যেকের হাতে ১ লক্ষ টাকার চেক ও ক্রেস্ট তুলে দেওয়া হয়। ঢাকা লিট ফেস্ট ২০১৯  এর প্রথম দিনে বাংলা একাডেমির আবদুল করিম সাহিত্য বিশারদ মিলনায়তনে এই পুরষ্কার প্রদান করা হয়।

জেমকন গ্রুপের পরিচালক ড. কাজী আনিস আহমেদ বলেন, তারা যে পাণ্ডুলিপি পেয়েছেন তা  বিচারকদের দ্বারা 'অজানা মূল্যায়ন' এর মাধ্যমে যাচাই করা হয়। 

তিনি বলেন, "বিচারকরা যখন পাণ্ডুলিপি মূল্যায়ন করেছেন তখন তারা লেখক ও কবিদের নাম জানতেন না।" 

জেমকন তরুণ কবিতা পুরষ্কারের অন্যতম বিচারক সাংবাদিক ও কবি সাজ্জাদ শরীফ বলেন, আমরা যখন যাচাই করছিলাম তখন সম্ভাবনার দিকটি নজরে রেখেছি। 

পুরষ্কারপ্রাপ্ত পশ্চিমবঙ্গের লেখক, তেত্রিশ বছর বয়সী অভিষেক সরকার বলেন, এই সময়ের শূণ্যতা 'নিষিদ্ধ'র ছোটগল্পগুলো লিখতে তাকে উদ্বুদ্ধ করেছে।  

 তিনি বলেন, "সবচেয়ে দৃশ্যমান সেন্সরশিপগুলো আমরা দেখতে পাই রাষ্ট্র বা সন্ত্রাসী সংগঠনগুলো থেকে। কিন্তু শৈশব থেকেই আমাদের মধ্যে কিছু সেন্সরশিপ প্রবেশ করিয়ে দেওয়া হয়।"

এই অন্তর্নিহিত সেন্সরশিপই তার গল্পগুলোর অন্যতম প্রধান বিষয়। 

বিচারক পাপড়ী রহমান বলেন, অভিষেক সরকার তার সময়ের এক অনন্য উদাহরণ। 

"তার কাজগুলোতে মুক্তচিন্তার মানুষদের কথা এসেছে যারা তাদের বক্তব্যের জন্য হামলার শিকার। এছাড়া রবীন্দ্রনাথ ও হোমারের মতো সাহিত্যিকরাও তার কাজে স্থান পেয়েছেন।"

অভিষেক সরকার প্রথম কোনো লেখক যিনি পশ্চিমবঙ্গ থেকে জেমকন তরুণ কথাসাহিত্য পুরুষ্কার পেলেন।

তরুণ কবিতা পুরস্কার পাওয়া রফিকুজ্জামান রণি তার অনুভূতি প্রকাশে বলেন, "আমি বিস্মিত, স্তম্ভিত এবং আনন্দিত। আমাকে বেছে নেওয়ার জন্য আমি আয়োজক এবং বিচারকদের ধন্যবাদ জানাই"