Monday, May 20, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

জয়শ্রী মিস্রা : একজন নিরলস লেখিকা

জয়শ্রী মিস্রার প্রথম উপন্যাস  “এনশিয়েন্ট প্রমিজেস” মূলত আত্মজীবনীমূলক। অতীতের স্মৃতি বর্ণনামূলক এই উপন্যাস বর্ণনাকারীর দৃষ্টিকোন থেকে বর্ণনা করা হয়েছে। এই উপন্যাসে মূলত একজন মহিলার নিজেকে খুঁজে পাওয়ার তাড়নাকে কেন্দ্র করে ঘটনা সাজানো হয়েছে।

আপডেট : ০৯ নভেম্বর ২০১৮, ১২:২১ পিএম

তার দীর্ঘ ক্যারিয়ারে তিনি আটটি উপন্যাস রচনা করেছেন যার মধ্যে অন্যতম হলো তার বেস্টসেলার “এনশিয়েন্ট প্রমিজেস”।

ফিকশন ধাঁচের লেখার পাঠকবৃন্দ জেনে আনন্দিত হবেন যে লন্ডনে বসবাসরত ভারতীয় লেখিকা জয়শ্রী মিস্রা অষ্টম ঢাকা লিট ফেস্টের এক আলাপে উপস্থিত থাকবেন। “প্রেশার কুকারের দুই হুইসেলের মধ্যবর্তী সময়ের মধ্যে লিখে ফেলার নীতি”-র ঘোর বিরোধী মিস্রা তাঁর ক্যারিয়ারের শুরু থেকেই লেখাকে পেশা হিসেবে বেছে নিয়েছেন। তার দীর্ঘ ক্যারিয়ারে তিনি আটটি উপন্যাস রচনা করেছেন যার মধ্যে অন্যতম হলো তার বেস্টসেলার “এনশিয়েন্ট প্রমিজেস”।

জয়শ্রী মিস্রার প্রথম উপন্যাস  “এনশিয়েন্ট প্রমিজেস” মূলত আত্মজীবনীমূলক। অতীতের স্মৃতি বর্ণনামূলক এই উপন্যাস বর্ণনাকারীর দৃষ্টিকোন থেকে বর্ণনা করা হয়েছে। এই উপন্যাসে মূলত একজন মহিলার নিজেকে খুঁজে পাওয়ার তাড়নাকে কেন্দ্র করে ঘটনা সাজানো হয়েছে। এই গল্পের কেন্দ্রীয় চরিত্র জানু শেষ অবধি   স্ত্রীর প্রতি অবহেলাপূর্ণ ও যত্ন না করা তার স্বামীকে তালাক দিতে মনস্থির করে। পরিবারের জোরাজুরিতে বিয়ে করতে সম্মত হওয়া জানুর স্বামী মূলত কেরালার সম্মানিত মারার পরিবারের সদস্য। জানুর প্রথম বিয়ে না টিকলেও সে বিয়ের ফলে সে শারীরিকভাবে অক্ষম একটি সন্তান জন্ম দেয়। তবে সে বিয়ে ভেঙ্গে যাওয়ার পর সে তার প্রথম প্রেম অর্জুনকে বিয়ে করে। এসব ঘটনাই লেখিকার নিজের জীবনের সাথে হুবহু মিলে যায়। একারনে এই উপন্যাসের প্রকাশক প্রথমে একে আত্মজীবনী হিসেবে প্রকাশ করতে চেয়েছিলেন। 

তবে, লেখিকা মনে করেন উপন্যাস হিসেবে এই বই লেখার ফলে তিনি “একধরনের লেখার স্বাধীনতা পেয়েছেন যাতে করে তিনি কেরালার কুসংস্কারপূর্ণ, রক্ষণশীল আবার অপরদিকে সৌন্দর্যমন্ডিত বিপরীতমুখী   জীবনের এক চিত্র অঙ্কন করতে পেরেছেন।“ ইন্ডিয়া টুডের ভাষ্যমতে অরুন্ধতী রয়ের সাহিত্য এজেন্ট হিসেবে বহুল পরিচিত ডেভিড গডউইন প্রথম নারী লেখিকা হিসেবে জয়শ্রী মিস্রাকে প্রতিনিধিত্ব করেছিলেন । গডউইনের মতে “এনশিয়েন্ট প্রমিজেস, “একটি মারাত্মক মর্মস্পর্শী উপন্যাস।“   

“এনশিয়েন্ট প্রমিজেস” লেখার সময় প্রথমবারের মতো মিস্রা নিজের লেখক প্রতিভা অনুধাবন করতে সক্ষম হন। যদিও নিজের অভিজ্ঞতাকে বইয়ে রূপান্তরিত করা সহজ কাজ নয়, তবে তিনি নিজের মধ্যে একরকম ভাবাবেগ তৈরি করতে পেরেছিলেন বলেই তিনি নিরবিচ্ছিন্নভাবে এই বই লিখতে পেরেছেন। তিনি এক সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন, ““এনশিয়েন্ট প্রমিজেস” লেখা আমার জন্যে খুব সহজ হয়েছে কেননা আমি এতে আমার বাস্তবিক ঘটনাবলিকে তুলে এনেছি, ফলে এই বইয়ের জন্যে আমাকে আলাদা করে কোনো গবেষণা করতে হয়নি।“ 

মিস্রার প্রথম উপন্যাস লেখার ধাঁচ তার অন্য অনেক লেখায়ও বিদ্যমান। এই বইয়ের অভূতপূর্ব সাফল্য (যেমনঃ এই বই কেরালা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক কোর্সে অন্তর্ভুক্ত) তাকে বছরের পর বছর ধরে লেখা চালিয়ে যেতে উদ্বুদ্ধ করেছে। যুক্তরাজ্যের হারপার কলিন্স-এর বানিজ্যিক প্রকাশনী এভনের সাথে ২০০৯ সালে তিনি এক চুক্তি সম্পাদন করেন যার প্রতিপাদ্য ছিল ৩ বছরে ৩টি বই লেখা। তিনি ২০১১ সালে তার এই চুক্তি সম্পন্ন করেন, তবে ততদিনে তিনি মোট ৭টি বই প্রকাশ করে ফেলেছেন। তাঁর ৭ম বইটির নাম ছিল “এ স্ক্যান্ডালাস সিক্রেট” যাতে তিনি জীবনের কঠিন সিদ্ধান্তকে পুঁজি করে গল্প সাজিয়েছেন।

তার লেখা উনবিংশ শতাব্দীর ব্রিটিশ-ইন্ডিয়া জে উপজীব্য করে রানী লক্ষী বাইয়ের জীবনী নির্ভর উচ্চাভিলাষী ঐতিহাসিক উপন্যাস “রানী” ভারতের উত্তর প্রদেশে নিষিদ্ধ হয়, আর এ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে মায়াবতীর নেতৃত্বে থাকা তৎকালীন সরকার। এই বইতে রানীলক্ষীবাইকে রবার্ট এলিস নামক একজন ব্রিটিশ নাগরিকের সাথে সম্পর্ক করতে দেখা যায়। এরকম একটি ঘটনাকে তৎকালীন উত্তর প্রদেশ সরকার ‘জাতীয়তাবাদী চেতনার সাথে সাংঘর্ষিক’ বলে ঘোষণা দেয়। মিস্রা পরবর্তীতে এই উপন্যাসের চলচ্চিত্র স্বত্ব একটি বলিউড ভিত্তিক কোম্পানির কাছে বিক্রি করে দেন। “মনিকর্নিকা : দ্যা কুইন অফ ঝানসি” নামে একটি চলচ্চিত্র আগামী জানুয়ারিতে মুক্তি পাবে বলে কথা রয়েছে। তবে, টাইমস অফ ইন্ডিয়ার মতে এই চলচ্চিত্র মিস্রার ঐতিহাসিক উপন্যাসের উপর ভিত্তি করে নির্মিত হয়নি।

মিস্রার লেখার প্রতি অদম্য আগ্রহ বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য। ২০১৭ সালে তিনি তার প্রথম নন-ফিকশন বই প্রকাশ করেন যার নাম হলো, “এ হাউজ ফর মিস্টার মিস্রা”। এই বইতে কেরালায় সমুদ্র সৈকতের কাছে একটি বাড়ি বানানোর ঘটনাকে তুলে ধরা হয়েছে। তিনি বর্তমানে একটি বই লিখছেন যাতে ব্রিটেনে এশিয়ান হিসেবে বসবাসের অভিজ্ঞতার বর্ণনা দেওয়া হয়েছে।

About

Popular Links