Sunday, May 19, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

বাণিজ্যমন্ত্রী: পেঁয়াজ সংকটের জন্য ভারত দায়ী

'গত ২৯ সেপ্টেম্বর হঠাৎ করেই ভারত পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ করে দিলে সংকট দেখা দেয়। আমরা বিপদে পড়ে যাই'

আপডেট : ২৭ নভেম্বর ২০১৯, ০৪:৫২ পিএম

দেশে পেয়াজ সংকটের জন্য ভারত দায়ী মন্তব্য করে বানিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছেন, তারা (ভারত) না জানিয়ে হঠাৎ করে পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ করে দেওয়ায় সংকট সৃষ্টি হয়েছে। তবে আমরা যে শিক্ষা পেলাম ভবিষ্যতে আর কখনও এমন সংকট হবে না এবং দ্রুত পেঁয়াজের দাম সহনীয় পর্যায়ে আসবে।

বুধবার (২৭ নভেম্বর) দুপুরে রংপুর জেলা প্রশাসকের সম্মেলনকক্ষে আয়োজিত “বৈদেশিক কর্মসংস্থানের জন্য দক্ষতা ও সচেতনতা” শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির হিসেবে যোগ দিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন মন্ত্রী।

টিপু মুনশি জানান, আমাদের দেশে বছরে পেঁয়াজ উৎপাদন হয় ২২ থেকে ২৩ লাখ টন। পচে যাওয়ার পর অবশিষ্ট থাকে ১৭ থেকে ১৮ লাখ টন। ফলে আমাদের বার্ষিক ঘাটতির পরিমাণ ৭ থেকে ৮ লাখ টন। পেঁয়াজের এই ঘাটতির ৯০ ভাগ পূরণ করা হতো ভারত থেকে আমদানি করে।

তিনি বলেন, কিন্তু গত ২৯ সেপ্টেম্বর হঠাৎ করেই ভারত পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ করে দিলে সংকট দেখা দেয়। আমরা বিপদে পড়ে যাই। তারা আমাদের আগে থেকে জানালে এ সমস্যায় পড়তে হতো না।

“যেহেতু ভারত থেকে আমরা পেঁয়াজ আমদানি করে আসছিলাম তাই আমরা বিকল্প চিন্তা করিনি। কিন্তু তারা যে রফতানি বন্ধ করে দেবে তা আমরা কখনো কল্পনাও করিনি,” যোগ করেন মন্ত্রী।

বাণিজ্যমন্ত্রী আরও বলেন, বিমানে করে পেঁয়াজ এনে সমস্যার সমাধান করা যাবে না। তাই জনগণের অসুবিধার কথা চিন্তা করে ২শ' টাকা কেজি দরে কিনে টিসিবির মাধ্যমে ভর্তুকি দিয়ে ৪৫ টাকা কেজি দরে পেঁয়াজ বিক্রি করছে সরকার।

About

Popular Links