• বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৮
  • সর্বশেষ আপডেট : ১২:০৭ রাত

বাফেটের দান ৩.৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলার!

  • প্রকাশিত ০১:৩৭ দুপুর জুলাই ১৭, ২০১৮
warren-buffett-1531812979888.jpg
পৃথিবীর ৩য় ধনী ব্যক্তি ওয়ারেন বাফেট। ছবি: রয়টার্স

কিংবদন্তি বিনিয়োগকারী ওয়ারেন বাফেট এবার তাঁর বার্কশায়ার হ্যাথাওয়ের (বিআরকেএ) শেয়ার থেকে ৩.৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলার জনস্বার্থে দান করেছেন। যার পরিমাণ বাংলাদেশি টাকায় ২৮ হাজার ৭ শত ৪৬ কোটি টাকা।

কিংবদন্তি বিনিয়োগকারী ওয়ারেন বাফেট এবার তাঁর বার্কশায়ার হ্যাথাওয়ের (বিআরকেএ) শেয়ার থেকে ৩.৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলার জনস্বার্থে দান করেছেন। যার পরিমাণ বাংলাদেশি টাকায় ২৮ হাজার ৭ শত ৪৬ কোটি টাকা।

আগের মতো এবারও ‘বিল ও মেলিনডা গেটস ফাউন্ডেশন’র পাশাপাশি পরিবারের সাথে সম্পৃক্ত চারটি ফাউন্ডেশনে এ অর্থ দান করেন তিনি। এ চারটি ফাউন্ডেশনের একটি তাঁর প্রয়াত স্ত্রী সুজানের নামে ‘বাফেট এডুকেশন ফোকাসড চ্যারিটি’; তাঁর মেয়ের পরিচালনায় ‘দ্য শেরউড ফাউন্ডেশন’; তাঁর বড় ছেলের দেখাশুনায় ‘দ্য হাওয়ার্ড জি. বাফেট ফাউন্ডেশন’ এবং তাঁর ছোট ছেলে পিটার ও পূত্রবধু জেনিফারের দেখ ভালে ‘দ্য নভো ফাউন্ডেশন’।    

সবমিলিয়ে এপর্যন্ত ওয়ারেন বাফেট এই ফাউন্ডেশন গুলোতে দান করেছেন মোট ৩১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।

২০০৬ সালে তিনি ঘোষণা করেছিলেন যে ধীরে ধীরে বার্কশায়ারের সমস্ত শেয়ার তিনি দান করে দেবেন।

তারপর থেকেই তিনি বিশাল অংকের অর্থ দান করে অন্যান্য ধনী ব্যক্তিদের দান করতে অনুপ্রাণিত করেন।

ওয়ারেন বাফেট, বিল গেটস ও মেলিন্ডা গেটস এর সাথে যৌথভাবে ‘দ্য গিভিং প্লেজ’ প্রতিষ্ঠা করেন। এই পদক্ষেপে সারাবিশ্বের আরও অনেক ধন্যাঢ্য ব্যক্তিবর্গ উৎসাহিত হয়েছে তাদের সম্পদের বেশিরভাগ দান করতে।    

বাফেট এখন পৃথিবীর ৩য় ধনী ব্যক্তি। ফোর্বস এর তথ্য অনুযায়ী তার অর্থের পরিমাণ ৮২ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। তাঁর আগে আছেন কেবল বিল গেটস আর গত সোমবার ১৫০ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের ঘর ছোঁয়া অ্যামাজনের সিইও জেফ বেজোস।