• শুক্রবার, নভেম্বর ১৬, ২০১৮
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৩:৩২ বিকেল

নেপালে ‘পাঠাও’

  • প্রকাশিত ০৩:২৫ বিকেল সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৮
পাঠাও রাইড শেয়ারিং
দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম ক্রমবর্ধমানশীল স্টার্টআপ প্রযুক্তি ভিত্তিক কোম্পানি ‘পাঠাও’ এবার নেপালে তাদের কার্যক্রম শুরু করতে চলেছে। ছবি: রাজীব ধর।

২০১৫ সালে শুরু হওয়া বাংলাদেশের প্রথম রাইড-শেয়ারিং কোম্পানি পাঠাও এখন দেশের সীমানা ছাড়িয়ে বিদেশের মাটিতে তাদের কার্যক্রম পরিচালনা করতে চলেছে।

দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম ক্রমবর্ধমানশীল স্টার্টআপ প্রযুক্তি ভিত্তিক কোম্পানি 'পাঠাও' এবার নেপালে তাদের কার্যক্রম শুরু করতে চলেছে। 

২০১৫ সালে শুরু হওয়া বাংলাদেশের প্রথম রাইড-শেয়ারিং কোম্পানি পাঠাও এখন দেশের সীমানা ছাড়িয়ে বিদেশের মাটিতে তাদের কার্যক্রম পরিচালনা করতে চলেছে।

ই-কমার্স ভিত্তিক ডেলিভারি সার্ভিস ও রাইড শেয়ারিং ভিত্তিক কার্যক্রম দিয়ে শুরু করলেও পরবর্তীতে ফুড ডেলিভারি সার্ভিসও চালু করেছে তুমুল জনপ্রিয় এই অনলাইন অ্যাপ ভিত্তিক সংস্থাটি।  

পাঠাও এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক হুসেইন এম ইলিয়াস ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘পাঠাও এমন একটি প্লাটফর্ম যা হাজার হাজার চালকের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থার পাশাপাশি কয়েক লক্ষ মানুষের প্রতিদিনের চলাচলে স্বস্তির পরশ এনে দিয়েছে। এখন আমাদের এই প্লাটফর্মকে নেপালে আন্তর্জাতিক পরিসরে শুরু করার জন্য আমরা অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছি। ইতোমধ্যেই আমরা নেপালে চালক সংগ্রহের কার্যক্রম শুরু করেছি এবং আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যে পুরোদমে আমাদের কার্যক্রম চালু করতে পারব বলে আশা করছি’।

#মুভিং নেপাল এর মাধ্যমে এর কার্যক্রম শুরু করতে যাওয়া পাঠাও নেপালের পরিবেশ রক্ষার বিষয়টিও গুরুত্বের সাথে দেখছে বলে এসময় উল্লেখ করেন হুসেইন এম ইলিয়াস। 

পাঠাও এর এই পদক্ষেপকে বাংলাদেশের জন্য ঐতিহাসিক উল্লেখ করে এর মার্কেটিং প্রধান সৈয়দা নাবিলা মাহমুদ বলেন, ‘আমরা অতি আনন্দের সাথে জানাচ্ছি যে, আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যে নেপালে আনুষ্ঠানিকভাবে আমরা আমাদের কাজ শুরু করতে চলেছি। আমরা ইতোমধ্যেই আমাদের কার্যক্রম শুরু করে দিয়েছি। নেপালে এধরণের সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে আমরাই প্রথম’।